ঢাকা, বৃহস্পতিবার 11 July 2019, ২৭ আষাঢ় ১৪২৬, ৭ জিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

চুরি করার দৃশ্য দেখে ফেলায় গামছা পেঁচিয়ে অবঃ কাস্টমস সুপারিনটেনডেন্টকে হত্যা

খুলনা অফিস : টাকা চুরির দৃশ্য দেখে ফেলায় গলায় গামছা পেঁচিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয় বয়রার কাস্টমসের অব. সুপারিনটেনডেন্ট মো. মোশাররফ হোসেনকে। গ্রেফতারকৃত আসামী মো. হাসান শেখ মঙ্গলবার এ হত্যাকা-ের বর্ণনা দিয়ে আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দী প্রদান করেছে। মহানগর হাকিম আতিকুস সামাদ এ জবানবন্দী রেকর্ড করেছেন।
গত ৩০ জুন সকাল ৬টায় সোনাডাঙ্গা থানাধীন ১৫২/২, ছোট বয়রা মেইন রোড, পূজাখোলা এলাকায় (অব.) কাস্টমস সুপারিনটেনডেন্ট মো. মোশাররফ হোসেন (৮০) মারা যান। বয়স্ক লোক হওয়ায় তার মৃত্যুকে স্বাভাবিক মৃত্যুর ঘটনা হিসেবে মনে করে গ্রামের বাড়ি দরগাপাড়া, শাহজাদপুর, সিরাজগঞ্জ কবরস্থানে দাফনকার্য সম্পন্ন হয়। এরপর বাদী খুলনায় ফিরে এসে তার শ্বশুরের ঘর ভালভাবে লক্ষ্য করলে ঘরের অবস্থা দেখে তার সন্দেহ হয়। এরপর বাদী পার্শ্ববর্তী বাড়ির সিসি ক্যামেরার ভিডিও ফুটেজ দেখে আসামীকে সনাক্ত করে।
সিসি ক্যামেরার ফুটেজ পর্যালোচনাকালে দেখা যায়, বাদীর শ্বশুরের মৃত্যুকালীন ৩০ জুন সকাল আনুমানিক ৫টা ২৫ মিনিট থেকে ৬টার মধ্যে ১৫১, ছোট বয়রা, পূজাখোলা (অব. মেজর নজরুল ইসলামের বাড়ি) তে বসবাসরত মোঃ হান্নান শেখের ছেলে আসামী মো. হাসান শেখ (২২) ওই ঘরে অবস্থান করছে। পরবর্তীতে স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় ৯ জুলাই সকাল সাড়ে ৯টায় তাকে আটক করা হয়।
বাদী আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে, সে স্বীকার করে, চুরি করার জন্য উক্ত ৪ তলা ভবনের ২য় তলায় বাদীর শ্বশুরের মেইন দরজা খোলা পেয়ে ভেতরে ঢুকে পড়ে। বাড়ির রান্নাঘরের মিটসেফের ওপর থেকে এক হাজার দুইশ টাকা পেয়ে নিয়ে নেয়। তখন মোঃ মোশাররফ হোসেন ঘটনা টের পায়। তিনি কে কে বলে চিৎকার করেন। তখন আসামী বাদীর শ্বশুরের গলায় গামছা পেঁচিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। এরপর এ বিষয়টি বাদীসহ তার নিকট আত্মীয়-স্বজনরা নিজেদের মধ্যে আলাপ আলোচনা করে আসামীকে ধরে এজাহারসহ সোনাডাঙ্গা মডেল থানা পুলিশের কাছে সোপর্দ করে। ঘটনার বিষয়ে মঙ্গলবার সোনাডাঙ্গা মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের হয়েছে (নং- ১৪, ধারা-৪৫৪/৩৮০/৩০২ পেনাল কোড)। আসামী আদালতে ফৌ.কা.বি. ১৬৪ ধারামতে জবানবন্দী প্রদান করেছে। মামলাটির জোর তদন্ত অব্যাহত রয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ