ঢাকা, শুক্রবার 12 July 2019, ২৮ আষাঢ় ১৪২৬, ৮ জিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশের নাগরিকত্ব দেয়ার দাবি জমিয়তে উলামায়ের 

স্টাফ রিপোর্টার: বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের এ দেশের নাগরিকত্ব দেয়ার দাবি জানিয়েছে জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ।

গতকাল বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে সংগঠনটির ঢাকা মহানগর কমিটির কাউন্সিলে এ দাবি জানানো হয়। নগর সভাপতি মাওলানা মঞ্জুরুল ইসলাম আফেন্দীর সভাপতিত্বে এবং যুগ্ম সম্পাদক ম্ওালানা বশিরুল হাসান খাদিমানী, মাওলানা মাহবুবুর রহমান, ও মাওলানা নুর মোহাম্মদের যৌথ পরিচালনায় অনুষ্ঠিত কাউন্সিলে প্রধান বক্তা হিসাবে বক্তব্য রাখেন জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের সভাপতি ও প্রধান অতিথি শায়খ আব্দুল মোমিন, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ এর মহাসচিব আল্লামা নূর হোছাইন কাসেমী, বাহাউদ্দিন জাকারিয়া, নাজমুল হোসেন, মহানগর জমিয়তের সহ সভাপতি মাওলানা আব্দুল কুদ্দুস, মাওলানা লোকমান মাজহারী ,মাওলানা হামিদ জাহিরী , মুফতি মকবুল হোছাইন কাসেমী, যুব জমিয়তের সহ সভাপতি মাওলানা জাবের কাসেমী সাধারণ সম্পাদক মাওলানা ইসহাক কামাল, ছাত্র জমিয়তের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাওলানা এখলাছুর রহমান ভুইয়া,মহানগর সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা হেদায়াতুল ইসলাম মাওলানা ওমর আলী প্রমুখ।

কাউন্সিলে জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের ঢাকা মহানগর কমিটির সভাপতি মাওলানা মঞ্জুরুল ইসলাম আফেন্দী সাত দফা প্রস্তাব তুলে ধরেন। এগুলো হলো- ভারতে মুসলিমদের ওপর হামলার প্রতিবাদ করা, পাঠ্যপুস্তকে বিবর্তনবাদ বাতিল করা, নারী নির্যাতন বন্ধ করা, আশ্রয় দেয়া রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশের নাগরিকত্ব দেয়া এবং তাদের সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করা, মাদক নির্মূল করা, আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা করা এবং শিক্ষাব্যবস্থার উন্নতি করা।

জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব আল্লামা নূর হোছাইন কাসেমী বলেছেন, ডারউইনের বিবর্তনবাদ প্রকৃত অর্থে একটি কুফরী মতবাদ। বানর থেকে মানুষের সৃষ্টি হয়েছে, মানুষের কোন সৃষ্টিকর্তা নেই, এ জাতীয় মতবাদ বিশ্বাস করলে কারো ঈমান থাকবে না। বাংলাদেশের মত একটি মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশে নবম - দশম শ্রেণী থেকে মাস্টার্স পর্যন্ত পাঠ্যপুস্তকে এ রকম কুফরী মতবাদের জায়গা কিভাবে হলো তা খুবই দুশ্চিন্তার বিষয়। মূলতঃ পাঠ্যপুস্তকে ডারউইনের এই কুফরী মতবাদকে অর্ন্তভূক্ত করে মুসলিম শিক্ষার্থীদেরকে নাস্তিক্যবাদের দিকে ঠেলে দেওয়া হচ্ছে। 

কাউন্সিল অধিবেশনে আগামী ২০১৯-২০২২ সেশনের জন্য নবগঠিত কমিটির প্রস্তাবনা পেশ করেন জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ এর সাংগঠনিক সম্পাদক হাফেজ ম্ওালানা নাজমুল হাসান, বিগত সেশনের লিখিত রিপোর্ট পেশ করেন মহানগর জমিয়তের সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মতিউর রহমান গাজীপুরী।

কাউন্সিলে মাওলানা মহ্জুরুল ইসলাম আফেন্দীকে সভাপতি মাওলানা মতিউর রহমান গাজীপুরীকে সাধারণ সম্পাদক, মাওলানা নূর মোহাম্মদকে সাংগঠনিক সম্পাদক, মাওলানা ইমরানুল বারী সিরাজীকে প্রচার সম্পাদক, মাওলানা সাউফুদ্দিন ইউসূফ ফাহিমকে যুব বিষয়ক সম্পাদক, ও মাওলানা মোহাম্মদ উল্লাহকে ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক করে ১১২ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ