ঢাকা, সোমবার 15 July 2019, ৩১ আষাঢ় ১৪২৬, ১১ জিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

ক্রাইস্টচার্চ হামলার পর ‘বাইব্যাক’ স্কিমের মাধ্যমে আধা-স্বয়ংক্রিয় অস্ত্র জমা দেয়া শুরু করলো নিউজিল্যান্ডবাসী

 ১৪ জুলাই, বিবিসি, দ্য হিন্দু, এনপিআর : ক্রাইস্টচার্চের দুটি মসজিদে হামলার পর নিউজিল্যান্ডে আধা-স্বয়ংক্রিয় অস্ত্র নিষিদ্ধ করা হয়। এর পর ‘বাইব্যাক’ স্কিমের অংশ হিসেবে শনিবার প্রথম বারের মত নিউজিল্যান্ডবাসীর কাছ থেকে নিষিদ্ধ অস্ত্র ফেরত নেয়ার প্রক্রিয়া শুরু করেছে দেশটির পুলিশ।

গত এপ্রিলে নতুন আইনটি কার্যকর করার পাশাপাশি নিষিদ্ধ অস্ত্রগুলো মালিকদের কাছ থেকে কিনে নেয়ার একটি ব্যবস্থা রাখা হয়, যাকে ‘বাইব্যাক’ স্কিম বলা হচ্ছে। এদিনে ক্রাইস্টচার্চের ১৬৯ জন আগ্নেয়াস্ত্রের মালিক তাদের কাছে থাকা ২২৪টি অস্ত্র জমা দেন। এর বিনিময়ে কর্তৃপক্ষ তাদের চার লাখ ৩০ হাজার নিউজিল্যান্ড ডলার ক্ষতিপূরণ দেয়। অস্ত্রগুলো জমা নেয়ার পর ধ্বংস করা হয়।

উল্লেখ্য, গত মার্চে ওই দুটি মসজিদে জুমার নামাজ চলার সময় একজন শ্বেতাঙ্গ বন্দুকধারীর গুলীতে ৫১ জন নিহত হওয়ার পর আইন সংস্কার করে সাধারণ নাগরিকদের জন্য সেমি-অটোমেটিক ও অ্যাসাল্ট রাইফেল নিষিদ্ধ করে নিউজিল্যান্ড সরকার। এই কার্যক্রমে জনগণের কাছ থেকে ইতিবাচক সাড়া পাওয়া যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন ক্যান্টাবুরির আঞ্চলিক পুলিশ কমান্ডার মাইক জনসন। এ অঞ্চলের নয় শতাধিক লোক তাদের কাছে থাকা এক হাজার ৪১৫টি আগ্নেয়াস্ত্র জমা দেয়ার জন্য নাম তালিকাভুক্ত করেছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

অস্ত্র জমা নেয়ার এ ‘বাইব্যাক’ স্কিমের জন্য নিউ জিল্যান্ড সরকার দেশটির মুদ্রায় ২০ কোটি ৮০ লাখ ডলার বরাদ্দ দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ