ঢাকা, শুক্রবার 19 July 2019, ৪ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৫ জিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

 বেসরকারি টিচার্স  ট্রেনিং কলেজ এমপিও ভুক্তিসহ ৫ দফা দাবি 

স্টাফ রিপোর্টার: বেসরকারি টিচার্স ট্রেনিং কলেজসমূহ এমপিওভুক্তিসহ ৫ দফা দাবিতে আগামীকাল শনিবার মহাসহাবেশের ঘোষণা দিয়েছেন বেসরকারি টিচার্স ট্রেনিং কলেজ শিক্ষক সমিতি। 

গতকাল বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক সাংবাদিক এই তথ্য নিশ্চিত করেন সমিতির সভাপতি ড. মুহাম্মদ নজরুল ইসলাম খান। সাংবাদিক সম্মেলনে সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক শিলা বার্ণাডেট গমেজ, প্রফেসর ফাতেমা খাতুন, অধ্যাপক রমজান আলী, মো: বাবুল হোসেনসহ অন্যান্য সিনিয়র নেতা উপস্থিত ছিলেন।

সাংবাদিক সম্মেলনে বেসরকারি টিচার্স ট্রেনিং কলেজ শিক্ষক সমিতির নেতোরা তাদের ৫ দফা দাবি বেসরকারি টিচার্স ট্রেনিং কলেজসমূহে কর্মরত সকল-শিক্ষক-কর্মচারীদের এমপিওভুক্ত করণ, সরকারি কলেজের ন্যায় বেসরকারি কলেজে কর্মরত সকল শিক্ষককে দেশে ও বিদেশে প্রশিক্ষণের সমান সুযোগদান, প্রতিটি বেসরকারি টিচার্স ট্রেনিং কলেজে একটি করে ডিজিটাল ল্যাব প্রতিষ্ঠাসহ তথ্য-প্রযুক্তির সকল সুবিধা নিশ্চিত করা, প্রতিটি বেসরকারি টিচার্স ট্রেনিং কলেজের নামে একখ- নিস্কণ্টক জমি চিরস্থায়ী বন্দোবস্ত দেয়া, জরুরি ভিত্তিতে বেসরকারি টিচার্স ট্রেনিং কলেজসমূহে অধ্যয়নরত প্রশিক্ষণার্থীদের ও কর্মরত শিক্ষক কর্মচারীদের আবাসন ব্যবস্থা নিশ্চিতে সহায়তা দানের বিষয়টি উত্থাপন করেন।

সাংবাদিক সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে ড. মুহাম্মদ নজরুল বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে বেসরকারি টিচার্স ট্রেনিং কলেজের যাত্রা শুরু হলেও ৯২ সাল থেকে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে এ সব কলেজ পরিচালিত হচ্ছে। বেসরকারি টিচার্স ট্রেনিং কলেজ থেকে প্রশিক্ষণ নিয়ে মাধ্যমিক স্কুলের শিক্ষকরা এমপিওভুক্তি হচ্ছেন, জাতীয় বেতন স্কেলে বেতন ভাতা পাচ্ছেন, কিন্তু যারা শিক্ষকদের প্রশিক্ষক তারা গত ২৭ বছরেও এমপিওভূক্তি(মান্থলি পে-অর্ডার বা বেতনের সরকারি অংশ) কিংবা সরকারি কোন ধরনের সুযোগ-সুবিধার আওতায় আনা হয়নি। এ সব প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারীরা বছরের পর বছর স্বল্প বেতনে বা বিনা বেতনে সেবা দিয়ে যাচ্ছেন।

ড. মুহাম্মদ নজরুল আরো বলেন, সরকারি বেসরকারি টিটিসি’র শিক্ষকরা আকাশ-পাতাল বৈষম্য বিরাজ করছে। সরকারি টিটিস শিক্ষকরা উন্নত প্রশিক্ষণ পেলেও বেসরকারি শিক্ষকদের কোনোভাবেই এধরনের প্রশিক্ষণের সুযোগ দেয়া হচ্ছে না বা পাচ্ছেন না। এ ব্যাপারে তিনি প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

বেসরকারি টিটিসি শিক্ষকদের এমপিওভুক্তিসহ ৫ দফা দাবির মধ্যে রয়েছে, বেসরকারি টিটিসি শিক্ষকদের দেশে-বিদেশে উন্নত প্রশিক্ষনের আওতায় নিতে হবে, বেসরকারি টিটিসিগুলোতে একটি করে ডিজিটাল ল্যাব প্রতিষ্ঠানসহ তথ্য-প্রযুক্তি সুবিধা নিশ্চিত করতে হবে। বেসরকারি টিটিসিগুলোকে এক খ- নিষ্কন্টক জমি চিরস্থায়ী বন্দোবস্ত দেয়া এবং বেসরকারি টিটিসিগুলোতে কর্মরত শিক্ষক-কর্মচারীদের আবাসন সুবিধা নিশ্চিত করা।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ