ঢাকা, শুক্রবার 19 July 2019, ৪ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৫ জিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

অভিযোগ গঠনের  শুনানি ৫ সেপ্টেম্বর

স্টাফ রিপোর্টার : বড়পুকুরিয়া কয়লাখনি দুর্নীতি মামলা খালেদা জিয়াসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের বিষয়ে শুনানি পিছিয়েছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার মামলাটির শুনানির তারিখ ধার্য ছিল। কিন্তু খালেদা জিয়া বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকায় তাঁকে আদালতে নেওয়া হয়নি। এ কারণেই শুনানি পিছিয়ে দেওয়া হয়।

ঢাকার কেরাণীগঞ্জের কেন্দ্রীয় কারাগারের সামনে দুই নম্বর ভবনে স্থাপিত বিশেষ আদালতে মামলাটি শুনানির জন্য উপস্থাপন করার পর ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-২ এর বিচারক এ এইচ এম রুহুল ইমরান পরবর্তী শুনানির তারিখ আগামী ৫ সেপ্টেম্বর ধার্য করেন।

দিনাজপুরের বড়পুকুরিয়া কয়লাখনি উত্তোলন, ব্যবস্থাপনা ও রক্ষণাবেক্ষণে ঠিকাদার নিয়োগে অনিয়ম এবং রাষ্ট্রের ১৫৮ কোটি ৭১ লাখ টাকা ক্ষতি ও আত্মসাতের অভিযোগে ২০০৮ সালের ২৬ ফেব্র“য়ারি শাহবাগ থানায় মামলাটি দায়ের করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। ওই বছর ৫ অক্টোবর খালেদা জিয়াসহ ১৬ আসামির অভিযোগপত্র দাখিল করে দুদক।

মামলায় খালেদা জিয়া ছাড়া অপর আসামিরা হলেন সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আলতাফ হোসেন চৌধুরী, তার ও টেলিফোনমন্ত্রী ব্যারিস্টার আমিনুল হক, ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, সাবেক জ্বালানিমন্ত্রী এ কে এম মোশাররফ হোসেন, জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের সাবেক ভারপ্রাপ্ত সচিব নজরুল ইসলাম, পেট্রোবাংলার সাবেক চেয়ারম্যান এস আর ওসমানী, সাবেক পরিচালক মঈনুল আহসান, বড়পুকুরিয়া কোল মাইনিং কম্পানির সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. সিরাজুল ইসলাম এবং খনির কাজ পাওয়া কম্পানির স্থানীয় এজেন্ট হোসাফ গ্রুপের চেয়ারম্যান মোয়াজ্জেম হোসেন প্রমুখ। 

উল্লেখ্য, দুটি দুর্নীতি মামলায় সাজাপ্রাপ্ত খালেদা এখন কারাগারে আছেন। কারাগারে থাকা অবস্থায়ই তাকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ