ঢাকা, শুক্রবার 19 July 2019, ৪ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৫ জিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

২০ জুলাই চট্টগ্রাম থেকে খালেদা জিয়া মুক্তি আন্দোলন শুরু

চট্টগ্রাম ব্যুরো : বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান ও সাবেক মন্ত্রী আবদুল্লাহ আল নোমান বলেছেন, আন্দোলনের সুতিকাগার হচ্ছে চট্টগ্রাম। চট্টগ্রাম থেকে শুরু না হলে কোন আন্দোলনের সফলতা আসে না। ২০ জুলাই বিভাগীয় মহাসমাবেশের মাধ্যমে চট্টগ্রামের মাটি থেকেই নবউদ্যোমে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে কারামুক্ত করার আন্দোলনের সূচনা করা হবে। এই আন্দোলনে আমাদের জয়ী হতে হবে। দেশনেত্রীকে কারামুক্ত করে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার না হওয়া পর্যন্ত এই আন্দোলন অব্যাহত থাকবে।

গতকাল বৃহস্পতিবার  বিকাল ৪টায় চট্টগ্রাম মহানগরীর নাসিমন ভবনস্থ বিএনপি কার্য্যালয়ের সম্মূখস্থ চত্বরে চট্টগ্রাম-১০ নির্বাচনী এলাকার আওতাধীন বিভিন্ন থানা ও ওয়ার্ড বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনসমূহের যৌথ উদ্যোগে বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে আগামী ২০ জুলাই চট্টগ্রামে বিএনপির উদ্যোগে অনুষ্ঠিত বিভাগীয় মহাসমাবেশ সফল করার লক্ষ্যে অনুষ্ঠিতব্য এক বিশাল কর্মী সমাবেশে আবদুল্লাহ আল নোমান প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখছিলেন।

আবদুল্লাহ আল নোমান বলেন, দেশে হীরক রাজার শাসন চলছে। গণতন্ত্র, নির্বাচন কমিশন, আইনের শাসন, বিচার বিভাগ, সংসদসহ সকল প্রতিষ্ঠান একদলীয়ভাবে সরকারের ইচ্ছায় পরিচালিত হচ্ছে। অতীতে ভোটের দিন কেন্দ্র দখল করে ব্যালট বাক্স ভর্র্তি করে জোর করে আওয়ামীলীগ ক্ষমতা দখল করত, আর এখন রাতের আধাঁরে ভোটের আগের দিন কেন্দ্র দখল করে ব্যালট বাক্স ভর্তি করে রাখা হয়। আমার নির্বাচনী এলাকাসহ সারাদেশে বিভিন্ন ভোট কেন্দ্রে শতভাগ ভোট গ্রহণ দেখানো হয়েছে। তার মানে হচ্ছে কবর থেকে এসে অনেক মৃত ব্যক্তিও ভোট প্রদান করেছে।

আবদুল্লাহ আল নোমান বলেন, ২৯ ডিসেম্বর রাতে অনুষ্ঠিত বাংলাদেশের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ প্রহসনের নির্বাচন হিসেবে গ্রিনেজ বুকে স্থান পাবে। আর এটাই হচ্ছে আওয়ামীলীগের সবচেয়ে বড় সফলতা।

আবদুল্লাহ আল নোমান বলেন, খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য এই অবৈধ সরকারের কাছে দাবী জানিয়ে কোন লাভ নেই। আন্দোলন ছাড়া কোন বিকল্প নেই। আন্দোলনের মাধ্যমে নেত্রীকে মুক্ত করার শপথ নিতে হবে। তিনি ২০ জুলাই অনুষ্ঠিতব্য বিভাগীয় সমাবেশে চট্টগ্রাম-১০ নির্বাচনী এলাকা এবং চট্টগ্রাম বিভাগের প্রতিটি থানা ও ওয়ার্ড থেকে মিছিল সহকারে যোগদান করার জন্য বিএনপি নেতাকর্মীদের প্রতি আহবান জানান।

মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি, সাবেক কাউন্সিলর শামসুল আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কর্মী সমাবেশে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্ঠা গোলাম আকবর খোন্দকার। প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সভাপতি ডাক্তার শাহাদাত হোসেন। বিশেষ বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবুল হাশেম বক্কর। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির শ্রম বিষয়ক সম্পাদক এ.এম. নাজিম উদ্দিন, কেন্দ্রীয় শ্রমিকদলের সভাপতি আনোয়ার হোসাইন, মহানগর বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি আবু সুফিয়ান। সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মহানগর বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক জাহাংগীর  আলম চৌধুরী, মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি আশারাফ উদ্দিন চৌধুরী, এস.কে খোদা তোতন, এডভোকেট সাত্তার সারোয়ার প্রমুখ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ