ঢাকা, মঙ্গলবার 23 July 2019, ৮ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৯ জিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

ত্রাণ দিবেন প্রতিমন্ত্রী ॥ রোদে ৩ ঘণ্টা দাঁড়াতে হলো ৭শ’ শিক্ষার্থীকে

স্টাফ রিপোর্টার: সিরাজগঞ্জের কাজিপুরে বন্যা দুর্গত এলাকা পরিদর্শনে আসা প্রতিমন্ত্রী ও উপমন্ত্রীকে সংবর্ধনা দেয়ার জন্য তীব্র রোদের মধ্যে দাঁড় করিয়ে রাখা হয়েছিল ৭ শতাধিক শিক্ষার্থীকে। গতকাল সোমবার সকাল ১০টা থেকে উপজেলার শহীদ এম মুনসুর আলীর নামে নির্মাণাধীন ইকোপার্কে এই শিক্ষার্থীদের রোদের মধ্যে দাঁড় করিয়ে রাখা হয়। এতে শিক্ষার্থী এবং অভিভাবকদের মধ্যে বিরূপ প্রতিক্রিয়া দেখা দেয়।
গতকাল সোমবার সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, সিরাজগঞ্জের কাজিপুর উপজেলা প্রশাসন বানভাসী মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণের আয়োজন করে। এতে অতিথি ছিলেন ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা প্রতিমন্ত্রী ডা. মো: এনামুর রহমান এবং পানি সম্পদ উপমন্ত্রী এ কে এম এনামুল হক শামীম। অতিথিরা ঘটনাস্থলে পৌঁছার আগে তাদের স্বাগত জানাতে সকাল ১০টা থেকে দুপুর প্রায় ১টা পর্যন্ত মাইজবাড়ি বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রায় ৭ শতাধিক শিক্ষার্থীকে রোদের মধ্যে লাইনে দাঁড় করিয়ে রাখা হয়।
এ সময় শিক্ষার্থীরা রোদে অস্বস্তি বোধ করতে থাকে। একপর্যায়ে বিষয়টি মিডিয়াকর্মীদের নজরে আসলে অতিথিরা ঘটনাস্থলে পৌঁছার আগেই দুপুর ১টার দিকে শিক্ষার্থীদের সেখান থেকে সরিয়ে নেয়া হয়। এ বিষয়ে বিদ্যালয়ে ১০ শ্রেণীর ছাত্র সজল মাহমুদ ও ৯ম শ্রেণীর ছাত্রী কানিজ ফাতেমাসহ অন্যান্য শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, তাদেরকে জোর করে নিয়ে এসে রোদে দাঁড় করিয়ে রাখা হয়েছিল।
এ বিষয়ে বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক রফিকুল ইসলাম মোল্লা বলেন, প্রধান শিক্ষকের নির্দেশে শিক্ষার্থীদের ঘটনাস্থলে আনা হয়েছে। তবে প্রধান শিক্ষকের সঙ্গে যোগাযোগ করা যায়নি। এ ব্যাপারে অনুষ্ঠানের আয়োজক কাজিপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাহিদ হাসান সিদ্দিকী জানান, আমরা কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে স্বাগত জানাতে অনুষ্ঠানস্থলে আসতে বলিনি। তবে কৌতুহল বশত: কেউ কেউ সেখানে আসতে পারে।
এদিকে, দুপুর ১টার পর ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা প্রতিমন্ত্রী ডা. মোঃ এনামুর রহমান এবং পানি সম্পদ উপমন্ত্রী এ কে এম এনামুল হক শামীম ঘটনাস্থলে পৌঁছেন। এ উপলক্ষে সিরাজগঞ্জ জেলা প্রশাসক ড. ফারুক আহাম্মদের সভাপতিত্বে সেখানে ত্রাণ বিতরণ পূর্ব এক সমাবেশের আয়োজন করা হয়। সমাবশে শেষে বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করা হয়।
সমাবেশে ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা প্রতিমন্ত্রী ডা. মোঃ এনামুর রহমান এবং পানি সম্পদ উপমন্ত্রী এ কে এম এনামুল হক শামীম, কাজিপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান খলিলুর রহমান সিরাজী, মাইজবাড়ি ইউপি চেয়ারম্যান শওকত হোসেন বক্তব্য রাখেন।
এ সময় বগুড়া-৫ আসনের সংসদ সদস্য হাবিবুর রহমান, ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব শাহ কামাল, সিরাজগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবু ইউসুফ, পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী শফিকুল ইসলাম, জেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা আক্তারুজ্জামান ভুইয়া ও কাজিপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাহিদ হাসান সিদ্দিকী উপস্থিত ছিলেন। এরআগে মন্ত্রীদ্বয় স্পীটবোর্ডে যমুনা নদী বেষ্টিত কাজিপুর উপজেলার চারটি চর ঘুরে দেখেন এবং সেখানকার বন্যা পরিস্থিতির খোঁজখবর নেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ