ঢাকা, মঙ্গলবার 23 July 2019, ৮ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৯ জিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

শিশু আয়েশা হত্যার বিচারের দাবিতে মায়ের অবস্থান

স্টাফ রিপোর্টার: রাজধানীর গেন্ডারিয়ার দীননাথ সেন রোডে দুই বছরের শিশু আয়েশাকে ধর্ষণের পর ৪ তলা ভবনের তিনতলা থেকে ফেলে হত্যা করায় হত্যাকারী নাহিদের বিচারের দাবি জানিয়ে অবস্থান কর্মসূচি করছেন শিশুটির মা সুলতানা রাজিয়া। এর আগেও গত জানুয়ারিতে আয়েশার ধর্ষণ ও হত্যার বিচারের দাবিতে প্রেস ক্লাবের সামনে অবস্থান নেন তিনি।
গত রোববার ও গতকাল সোমবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে শিশুটির মা সুলতানা রাজিয়া বিচারের দাবিতে দ্বিতীয় দিনের মতো অবস্থান করছেন। এসময় তিনি তার বাকি ৩ কন্যা সন্তানকে নিয়েই সেখানে অবস্থান করেন।
সুলতানা রাজিয়া বলেন, আজকে গরীব বলে কি আমার মেয়ের হত্যার বিচার পামু না? আমার দুধের শিশুরে মাইরা ফেলসে নাহিদ। আমার মাইয়াটা হাটতেও পারতো না, তারে মাইরা ফেলসে। আয়েশা কান্নাজড়িত গলায় আহাজারি করে বলেন, শেখ হাসিনার কাছে বিচার চাই, সরকারের কাছে বিচার চাই।
সুলতানা রাজিয়া জানান, তার দুই বছরের শিশু আয়েশাকে খাওয়ানোর লোভ দেখিয়ে ডেকে নিয়েছিল পাশের চারতলা ভবনের মালিকের ভাই নাহিদ (৪৫)। দীননাথ সেন রোডের ৮২/১/সি নম্বর চারতলা বাড়ির পাশে টিনশেড বস্তিতে মা-বাবা ও তিন বোনের সঙ্গে থাকত শিশু আয়েশা। আয়েশার বাবা গ্রিল মিস্ত্রির কাজ করেন। গেন্ডারিয়ার সাধনা ঔষধালয়ের সামনে গলিতে খেলে বেড়াত শিশুটি। অন্যান্য দিনের মতো গত ৫ জানুয়ারি বিকালে খেলতে বের হয় সে। সন্ধ্যার দিকে চারতলা ভবনের সামনে আয়েশার রক্তাক্ত নিথর দেহ পড়ে থাকতে দেখা যায়। তখন এলাকার মানুষ তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল নিয়ে যায়। সেখানে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে। এরপর এলাকাবাসী গেন্ডারিয়া থানা ঘেরাও করলে পরে পুলিশ নাহিদকে গ্রেফতার করে।
সুলতানা রাজিয়া বলেন, আমি আমার মেয়ের হত্যার বিচার চাই। প্রধানমন্ত্রী আমার মেয়ের হত্যার বিচার করেন। আমি প্রধানমন্ত্রীর কাছে বিচার চাই।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ