ঢাকা, সোমবার 19 August 2019, ৪ ভাদ্র ১৪২৬, ১৭ জিলহজ্ব ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

ভার্চুয়াল অফিস

মুহাম্মদ আবুল হুসাইন: সময়ের পরিবর্তনের সাথে সাথে মানুষের জীবনধারায় এসেছে অনেক পরিবর্তন।সেই সাথে পাল্টে যাচ্ছে আরো অনেক কিছু।তার মধ্যে অন্যতম হলো ভার্চুয়াল অফিস।ভার্চুয়াল অফিস হলো এমন অফিস, যা বিদ্যমান কিন্তু দৃশ্যমান নয়।ভার্চুয়াল অফিস পদ্ধতিতে কর্মীরা সশরীরে অফিসে হাজির না হয়েও ঘরে-বাইরে যেকোনো জায়গায় বসে অনলাইনে কাজ সারতে পারছেন।খ্যাতনামা ইন্টারনেটভিত্তিক সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান ইয়াহুতে একসময় ভার্চুয়াল পদ্ধতিতে অফিস করার সুযোগ ছিল। 

গতানুগতিক অফিস বলতে আমরা বুঝি এমন একটি অফিস যার একটি দৃশ্যমান স্থাপনা থাকবে।অর্থাৎ নিজস্ব বা ভাড়া করা একটি বিল্ডিং বা কমপক্ষে এক বা দুটি রুম থাকবে, ফার্নিচার থাকবে, লাইট-ফ্যান, এসি, কম্পিউটার প্রিন্টার ইত্যাদি থাকবে এবং সেখানে স্টাফরা একসাথে বসে কাজ করবে।

গতানুগতিক ধারণায় ব্যবসা শুরু করার পর প্রথমেই বিরাট একটা অংশ খরচ হয়ে যায় অফিস সেট আপ করতে। তারপর অফিস ও অফিস স্টাফ চালানোর খরচ। সেটা আপনার ব্যবসায় লাভ হোক আর নাই হোক। তাই ব্যবসার ইচ্ছে থাকলেও অফিস স্টাব্লিশমেন্ট কস্ট'র কারণে অনেকে সেটা প্রফেশনাল ভাবে করতে পারছেন না; ব্যবসার আইডিয়া যত ভালই হোক না কেন।

কিন্তু নানা বাস্তবতার কারণে কর্মক্ষেত্রের এই গতানুগতিক ধারণায় পরিবর্তন এসেছে।এখন চালু হয়েছে ভার্চুয়াল অফিস, যা ওয়ার্কস্পেস শিল্পেরই একটি অংশ, কিন্তু এটি একই সাথে নমনীয় এবং যুগোপযোগি।এরফলে শুধু যে উদ্যোক্তাদের অফিস স্টাব্লিশমেন্ট কস্ট বাবদ মূলধনের একটা বিরাট অংশ বেঁচে যায় তাই নয়, যানজটের হাত থেকে রক্ষা পাওয়ায় স্টাফদের কর্মঘন্টার সাশ্রয় হওয়ার পাশাপাশি ভোগান্তিও কমে যায়।বিশেষ করে ডিজিটাল প্রযুক্তির উন্নয়নের কারণে বিশেষ করে মোবাইল ও ইন্টারনেট সেবার সহজলভ্যতার কারণে এখন ভার্চুয়াল যোগাযোগ সহজ হওয়ায় মানুষ বিভিন্ন অবস্থানে থেকেই একে অপরের সাথে যোগাযোগ ও সেবার আদান প্রদান করতে পারার কারণে ভার্চুয়াল অফিসের প্রবণতা বৃদ্ধি পায়।এর 

ফলে দ্রুত বিস্তার লাভ করছে ই-কমার্স বিজনেস। ভার্চুয়াল অফিসের জনপ্রিয়তা যত বৃদ্ধি পাবে গণপরিবহণের উপর চাপও তত হ্রাস পাবে।সেই সাথে বৃদ্ধি পাবে কাজের গতি।

 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ