ঢাকা,মঙ্গলবার 30 July 2019, ১৫ শ্রাবণ ১৪২৬, ২৬ জিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

পয়লা আগস্ট থেকে শুরু হচ্ছে টেস্ট চ্যাম্পিয়ন্সশিপ

স্পোর্টস ডেস্ক: বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নসশিপ আলোর মুখ দেখছে আগামী পয়লা আগস্ট। ২২ বছর আগে আলী বাসের, ক্লিভ লয়েড এবং আরিফ আলী আব্বাসরা এর ধারণা দেন। তার সঙ্গে কিছু বিষয় যোগ করে শুরু হচ্ছে টেস্ট ক্রিকেটের বিশ্বকাপ। ১ আগস্ট ইংল্যান্ডে অ্যাসেজ সিরিজ দিয়ে পর্দা উঠবে টেস্ট চ্যাম্পিয়নসশিপের। টেস্ট চ্যাম্পিয়নসশিপ কেমন হবে তার ধারণা দিয়েছে আইসিসি।টেস্ট চ্যাম্পিয়নসশিপ কি: টেস্ট র্যাংকিংয়ের সেরা নয় দল এতে অংশ নেবে। প্রত্যেক দল দুই বছরের এই চ্যাম্পিয়নসশিপে একে-অপরের মুখোমুখি হবে। প্রত্যেক দল ঘরের মাঠে এবং অ্যাওয়ে ভিত্তিতে তিনটি করে ছয়টি সিরিজ খেলবে। সিরিজ হবে মোট ২৭টি। শেষে পয়েন্ট টেবিলের সেরা দুই দল খেলবে ফাইনাল।কেন টেস্ট চ্যাম্পিয়নসশিপ: দ্বিপাক্ষিক সিরিজের মাধ্যমে পয়েন্ট নির্ধারণ করা হবে। প্রত্যেক দল জয়, ড্র কিংবা টাই ম্যাচের জন্য পয়েন্ট পাবে। টি-২০ ক্রিকেটের যুগে ক্রিকেটের আদি সংস্করণ টেস্ট বাঁচিয়ে রাখতে এবং তা জনপ্রিয় করতে এই উদ্যোগ দেওয়া হয়েছে।টেস্ট বিশ্বকাপে অংশ নিচ্ছে যারা: র্যাংকিংয়ে সেরা নয় দল টেস্ট বিশ্বকাপ খেলবে। ২০১৮ সালের ৩১ মার্চ পর্যন্ত সেরা নয় দলকে তাই চ্যাম্পিয়নসশিপ খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে। ভারত, ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা, পাকিস্তান, শ্রীলংকা, ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবং বাংলাদেশ খেলবে একে-অপরের বিপক্ষে। জিম্বাবুয়ে, আয়ারল্যান্ড কিংবা আফগানিস্তানের বিপক্ষেও দেশগুলো টেস্ট খেলবে। তবে তা চ্যাম্পিয়নসশিপের আওতায় পড়বে না।সিরিজগুলো যেমন হবে: কমপক্ষে দুই টেস্টের সিরিজ হবে। সর্বোচ্চ পাঁচ টেস্টের সিরিজ। অ্যাসেজের কথা মাথায় রেখে পাঁচ টেস্টের সিরিজ রাখা হয়েছে। এর বাইরে ভারত-ইংল্যান্ড পাঁচ টেস্টের সিরিজ খেলবে। চার টেস্টের একটি করে সিরিজ খেলবে কেবল অস্ট্রেলিয়া-ভারত এবং ইংল্যান্ড-দক্ষিণ আফ্রিকা। বাংলাদেশ মাত্র দুটি তিন টেস্টের সিরিজ খেলবে। তাও শ্রীলংকা এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে যথাক্রমে ২০২০ ও ২০২১ সালে।যেভাবে পয়েন্ট ভাগাভাগি হবে: প্রত্যেক সিরিজে ১২০ পয়েন্ট করে থাকবে। সেটা পাঁচ টেস্টের সিরিজ হোক কিংবা দুই টেস্টের সিরিজ। পাঁচ টেস্টের সিরিজ হলে ম্যাচ প্রতি পয়েন্ট ২৪ করে। দুই ম্যাচের হলে ৬০ পয়েন্ট করে। ম্যাচ টাই হলে মূল পয়েন্টের অর্ধেক করে পাবে দু'দল। তবে ড্র হলে মূল পয়েন্টের তিনভাগের একভাগ পাবে দু'দল। যেমন-এক ম্যাচের পয়েন্ট ৬০ হলে ড্র ম্যাচে দু'দল ২০ করে পয়েন্ট পাবে। পয়েন্ট ২৪ হলে পাবে ৮ করে।পরের টেস্ট চ্যাম্পিয়নসশিপ কবে থেকে: প্রত্যেকটি টেস্ট বিশ্বকাপ দু'বছর মেয়াদি। প্রথমটি ১ আগস্ট ২০১৯ থেকে ২০২১ সালের জুন পর্যন্ত। পরের চ্যাম্পিয়নসশিপ ২০২১ সালের জুন থেকে ২০২৩ সালের এপ্রিল পর্যন্ত সময় নির্ধারণ করা হয়েছে।টেস্ট র্যাংকিংয়ে প্রভাব: পত্যেক সিরিজ শেষেই এখনকার মতো র্যাংকিং আপডেট করা হবে। সেভাবেই ঠিক করা হবে দলের র‌্যাংকিং।

টেস্ট চ্যাম্পিয়নসশিপে বাংলাদেশের সিরিজ: 

বাংলাদেশ-ভারত, দুই সিরিজের টেস্ট, নভেম্বর ২০১৯। 

বাংলাদেশ-পাকিস্তান, দুই সিরিজের টেস্ট ২০২০।

বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া, দুই সিরিজের টেস্ট, ২০২০।

বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ড, দুই সিরিজের টেস্ট, ২০২০।

বাংলাদেশ-শ্রীলংকা, তিন সিরিজের টেস্ট, ২০২০।

বাংলাদেশ-ওয়েস্ট ইন্ডিজ, তিন সিরিজের টেস্ট, ২০২১।

প্রথম দুই বছরে বাংলাদেশ যে ছয়টি টেস্ট সিরিজ খেলবে তাতে দক্ষিণ আফ্রিকা এবং ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচ নেই বাংলাদেশের।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ