ঢাকা, শনিবার 3 August 2019, ১৯ শ্রাবণ ১৪২৬, ১ জিলহজ্ব ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

দেড় হাজার কোটি টাকা বাজার মূলধন ফিরে পেল ডিএসই

স্টাফ রিপোর্টার : গত সপ্তাহের পাঁচ কার্যদিবসের মধ্যে চার কার্যদিবসেই ঊর্ধ্বমুখী ছিল দেশের শেয়ারবাজার। এতে প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) দেড় হাজার কোটি টাকার ওপরে বাজার মূলধন ফিরে পেয়েছে। সেই সঙ্গে বেড়েছে সবকটি মূল্য সূচক এবং লেনদেনের পরিমাণ।
গত সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস শেষে ডিএসইর বাজার মূলধন দাঁড়িয়েছে ৩ লাখ ৮৬ হাজার ১৮৫ কোটি টাকা। যা তার আগের সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে ছিল ৩ লাখ ৮৪ হাজার ৪৬৭ কোটি টাকা। অর্থাৎ এক সপ্তাহে ডিএসইর বাজার মূলধন বেড়েছে ১ হাজার ৭১৮ কোটি টাকা।
বাজার মূলধনের বড় উত্থানের পাশাপাশি গত সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয়া বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বেড়েছে। ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ৩৫৪টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের মধ্যে ১৮২টির দাম আগের সপ্তাহের তুলনায় বেড়েছে। অপরদিকে দাম কমেছে ১৫৪টির। আর দাম অপরিবর্তিত রয়েছে ১৮টির। বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের দাম বাড়ার ফলে ডিএসইর সব সূচকও বেড়েছে। গত সপ্তাহে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স বেড়েছে ৩৬ দশমিক ৪৮ পয়েন্ট বা দশমিক ৭১ শতাংশ। আগের সপ্তাহে এ সূচকটি বাড়ে ২ দশমিক ৫৬ পয়েন্ট বা দশমিক শূন্য ৫ শতাংশ। অপর দুটি সূচকের মধ্যে গত সপ্তাহে ডিএসই-৩০ আগের সপ্তাহের তুলনায় বেড়েছে ২ দশমিক ৩১ পয়েন্ট বা দশমিক ১৩ শতাংশ। আগের সপ্তাহে এ সূচকটি বাড়ে ৬ দশমিক ৬১ পয়েন্ট বা দশমিক ৩৬ শতাংশ। আর গত সপ্তাহে ডিএসই শরিয়াহ্ সূচক বেড়েছে ১৮ দশমিক ৪৬ পয়েন্ট বা ১ দশমিক ৫৭ শতাংশ। আগের সপ্তাহে এ সূচকটি কমে ২ দশমিক ৪১ পয়েন্ট বা দশমিক ২১ শতাংশ।
মূল্য সূচকের উত্থানের পাশাপাশি বেড়েছে লেনদেনের গতি। গত সপ্তাহের প্রতি কার্যদিবসে ডিএসইতে গড়ে লেনদেন হয়েছে ৪৪০ কোটি ৪৪ লাখ টাকা। আগের সপ্তাহে প্রতিদিন গড়ে লেনদেন হয় ৩৯৯ কোটি ৬৮ লাখ টাকা। অর্থাৎ প্রতি কার্যদিবসে গড় লেনদেন বেড়েছে ৪০ কোটি ৭৬ লাখ টাকা বা ১০ দশমিক ২০ শতাংশ।
আর গত সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২ হাজার ২০২ কোটি ২৩ লাখ টাকা। আগের সপ্তাহে লেনদেন হয় ১ হাজার ৯৯৮ কোটি ৪২ লাখ টাকা। সে হিসাবে মোট লেনদেন বেড়েছে ২০৩ কোটি ৮১ লাখ টাকা বা ১০ দশমিক ২০ শতাংশ। গত সপ্তাহের মোট লেনদেনের মধ্যে ‘এ’ গ্রুপের প্রতিষ্ঠানের অবদান দাঁড়িয়েছে ৮১ দশমিক ২০ শতাংশ। এ ছাড়া মোট লেনদেনের ১২ দশমিক ৪৭ শতাংশ ছিল ‘বি’ গ্রুপের দখলে। মোট লেনদেনে ‘ জেড’ গ্রুপের প্রতিষ্ঠানের অবদান দশমিক ৮৯ শতাংশ। আর ‘এন’ গ্রুপের অবদান ৫ দশমিক ৪৩ শতাংশ।
গত সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে টাকার অংকে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে ফরচুন সুজের শেয়ার। কোম্পানিটির ৯৪ কোটি ৪২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যা সপ্তাহজুড়ে হওয়া মোট লেনদেনের ৪ দশমিক ২৯ শতাংশ। দ্বিতীয় স্থানে থাকা ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশনের শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৯১ কোটি ৫৭ লাখ টাকা, যা সপ্তাহের মোট লেনদেনের ৪ দশমিক ১৬ শতাংশ। ৭৬ কোটি ৯১ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনে তৃতীয় স্থানে রয়েছে বাংলাদেশ শিপিং কর্পোরেশন। লেনদেনে এরপর রয়েছে মুন্নু সিরামিক, স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস, বিকন ফার্মাসিউটিক্যাল, জিনেক্স ইনফোসিস, জেএমআই সিরিঞ্জ, সিনোবাংলা ইন্ডাস্ট্রিজ এবং সিঙ্গার বাংলাদেশ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ