ঢাকা, শনিবার 3 August 2019, ১৯ শ্রাবণ ১৪২৬, ১ জিলহজ্ব ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

পাবনায় ভাড়া বাড়িতে এক নারীকে গণধর্ষণ বাড়ির মালিক গ্রেপ্তার

পাবনা থেকে সংবাদদাতা: পাবনা শহরে এক ভাড়া বাড়িতে এক নারী গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন। শহরের শিবরামপুর মহিষের ডিপো এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নারীকে পাবনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পুলিশ বাড়ির মালিককে গ্রেপ্তার করেছে।  পাবনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওবায়দুল হক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। পুলিশ ও পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, দুইমাস আগে ভুক্তভোগী ঐ নারী ও তার গার্মেন্টস শ্রমিক ভাই মিলে শিবরামপুর এলাকায় হায়দার আলীর বাড়িতে ভাড়া নেন। গত বুধবার কাজের চাপ বেশি থাকায় তার ভাই রাতে বাড়িতে ফেরেননি। এদিন রাতে খাবার শেষে ভুক্তভোগী নারী ঘুমিয়ে পড়লে রাত দুইটার দিকে বাড়িওয়ালার সহযোগিতায় চার যুবক ঘরে প্রবেশ করে তাকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। বৃহস্পতিবার রাতে ভুক্তভোগী নারীর ভাই বাড়িতে ফিরে ঘটনা জানতে পারেন। এ সময় নির্যাতিতা নারী অসুস্থ হয়ে পড়লে রাত একটার দিকে তাকে পাবনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পাবনা সদর হাসপাতালে গাইনী বিভাগের চিকিৎসক প্রসূতি রোগ বিশেষজ্ঞ ডা. নার্গিস সুলতানা জানান, প্রাথমিক অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে আমরা মেয়েটিকে পরীক্ষা করছি। তাকে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দিচ্ছি। প্রাথমিক পরীক্ষায় তাকে ধর্ষণের আলামত মিলেছে বলেও জানান তিনি। এ বিষয়ে পাবনা পুলিশ সুপার শেখ রফিকুল ইসলাম বিপিএম পিপিএম জানান, ঘটনা জানার পরপরই বাড়ির মালিক হায়দার আলীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। পুলিশ বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করছে। এই ঘটনার সাথে অন্য যারা জড়িত আছে তাদেরকে গ্রেপ্তারের জন্য অভিযান চালছে। মামলা প্রক্রিয়াধিন রয়েছে। আশা করছি যারা জড়িত আছে অতি দ্রুত সময়ের মধ্যে তাদেরকে গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনা হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ