ঢাকা, বুধবার 13 November 2019, ২৯ কার্তিক ১৪২৬, ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

নানা বাড়ি যাওয়া হলো না শিশু তামিমের

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: মহাসড়কে এখনো চলে তিন চাকার মহেন্দ্র।আর তার বলি হলো ঈদ যাত্রী ১০ বছরের শিশু তামিম।আজ শনিবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে ফরিদপুরের ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের মধুখালী উপজেলার ঘোপঘাট এলাকায় প্রাইভেটকার ও মাহেন্দ্রর মুখোমুখি সংঘর্ষে মাহেন্দ্রে থাকা তামিম নামের ১০ বছরের এক বালক ঘটনাস্থলেই নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে আরও ৪ ব্যক্তি।

নিহত  তামিম মাগুরা জেলার নারায়নপুর গ্রামের মজিবর মল্লিকের ছেলে।

নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, নারায়নপুর গ্রামের বাড়ি থেকে মাহেন্দ্রযোগে তামিম তার মা আশা আক্তারের সঙ্গে ফরিদপুরের মধুখালীতে নানা বাড়ি যাচ্ছিল। পথিমধ্যে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারায় তামিম। দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছেন তামিমের মা আশা আক্তার। তাকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার অবস্থাও আশঙ্কাজনক।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, ঢাকা থেকে মাগুরাগামী একটি প্রাইভেটকারের (ঢাকা মেট্রো গ ৩৫-৭০৮০) সঙ্গে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি তিন চাকার মাহেন্দ্র গাড়ির মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষে ঘটনাস্থলেই মাহেন্দ্রে থাকা ১০ বছরের বালক নিহত হয়। এসময় গুরুতর আহত হয় আরও ৪ জন। আহতরা হলেন, আশরাফ, নজরুল, তৈয়ব ও নিহতের মা আশা আক্তার।

মধুখালী ফায়ার সার্ভিসের সদস্য, পুলিশ ও স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে মধুখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠায়। তাদের অবস্থা গুরুত্বর হওয়ায় সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসকরা প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

হাইওয়ে পুলিশের কানাইপুর ফাঁড়ির এসআই জয়নুল ইসলাম জানান, প্রাইভেটকার ও মাহেন্দ্রর মুখোমুখি সংঘর্ষে মাহেন্দ্রে থাকা এক বালক ঘটনাস্থলেই মারা গেছে। আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ