ঢাকা, মঙ্গলবার 17 September 2019, ২ আশ্বিন ১৪২৬, ১৭ মহররম ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

রূপনগরের ঝিলপাড় বস্তি থেকে এখনো ভেসে আসে পোড়া গন্ধ

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: অগ্নিকাণ্ডে পুরোপুরি ধ্বংসস্তূপে পরিণত হওয়া রাজধানী মিরপুরের ঝিলপাড় বস্তি থেকে এখনো বাতাসে ভেসে আসে পোড়া গন্ধ। ৭ নম্বর সেকশনের চলন্তিকা মোড়ে অবস্থিত বস্তিটিতে ছিল তিন হাজার বসত ঘর, যা টানা তিন ঘন্টার আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।সর্বস্ব হারিয়েছে বস্তিবাসী।ঘর হারিয়ে গতকাল রাতে বৃষ্টির মধ্যে রাস্তায় রাত কাটিয়েছে তারা।

গত শুক্রবার (১৬ আগস্ট) সন্ধ্যা ৭টা ২২ মিনিটে বস্তিটিতে আগুনের সূত্রপাত হয়। ফায়ার সার্ভিসের ২৪টি ইউনিটের চেষ্টায় রাত ১০টা ৩৫ মিনিটে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসলেও ততক্ষণে পুরো বস্তি পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

আজশনিবার (১৭ আগস্ট) সকাল সাড়ে ৯টায় সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, পুরো বস্তি পুড়ে কয়লা হয়ে গেছে। বিশাল এলাকা জুড়ে থাকা বস্তিটিতে অগ্নিকাণ্ডের কারণে আর কোনো ঘর বাড়ি আস্ত নেই। বস্তিটি এখন আগুনে পুড়ে যাওয়া ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছে। কয়েকটা পোড়া টিন, কাঠ ও বাঁশ ছাড়া আর কিছুই বাকি নেই। বস্তির চারদিকে এখন শুধুই পোড়া গন্ধ।

স্থানীয়দের অভিযোগ, সরকারি জায়গায় গড়ে ওঠা বস্তিতে ঢোকার জন্য ২১ ফুটের যে রাস্তা ছিল তা রিকশার গ্যারেজ আর দোকানে ভরা ছিল। রোড ভাড়া দিয়ে মাসিক টাকা নিতেন প্রভাবশালীরা।

তাদের দাবি, অন্তত ভেতরে প্রবেশের রাস্তাটি ফাঁকা থাকলে ফায়ার সার্ভিস দ্রুত ভেতরে ঢুকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে পারত। অন্তত কিছু ঘর রক্ষা করা যেত।

উল্লেখ্য, আগুন নিয়ন্ত্রণের সময় পানি সংকটে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীদের বেগ পেতে হয়। পরে বস্তির আশেপাশের বাসাবাড়ির রিজার্ভ ট্যাংক থেকে পানি সরবরাহ করা হয়। এছাড়া ওয়াসার গাড়ি এনে আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করা হয়।

ডিএস/এএইচ

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ