ঢাকা, শুক্রবার 23 August 2019, ৮ ভাদ্র ১৪২৬, ২১ জিলহজ্ব ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

কাশ্মীর ইস্যুতে প্রিয়াংকা চোপড়াকে জাতিসংঘ থেকে বিদায় করার দাবি

২২ আগস্ট, ইন্টারনেট : পাকিস্তানের মানবাধিকার মন্ত্রণালয় থেকে জাতিসংঘের কাছে কড়া চিঠি পাঠালেন মন্ত্রী শিরিন মাজারি। চিঠিতে ভারতীয় অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়াকে ইউনিসেফের শুভেচ্ছা দূতের পদ থেকে সরানোর দাবি করা হয়েছে। জনসমক্ষে প্রিয়াঙ্কা কিছুদিন আগেই কাশ্মীর নিয়ে ভারত সরকারের চিন্তাভাবনা নিয়ে মন্তব্য করেছিলেন। একইসঙ্গে ভারতীয় ডিফেন্স মিনিস্ট্রির পক্ষ থেকে পাকিস্তানের উপর পরমাণু হামলার হুমকিকেও সাধুবাদ জানিয়েছেন। এগুলির জেরে একজন শান্তি ও শুভেচ্ছার দূত হিসেবে নিজের যোগ্যতা প্রিয়াঙ্কা হারিয়েছেন বলে দাবি করেছেন পাকিস্তানি মন্ত্রী শিরিন মাজারি। ট্যুইটে সেই চিঠি শেয়ারও করেছেন তিনি।

মাজারি বলেন, ‘‘প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার সাম্প্রতিক মন্তব্যের উপর আপনাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে চাই। যাকে আপনারা জাতিসংঘের শুভেচ্ছা দূত হিসেবে নিযুক্ত করেছেন। ৩৭০ ধারা বিলুপ্তিতে ভারত অধিকৃত কাশ্মীরে কাশ্মীরি মুসলমানদের জাতিগতভাবে নির্মূলকরণের কাজ চলছে। বিজেপি সরকারের কাজকর্ম একেবারে নাৎসি মতাদর্শের মতো। আর প্রিয়াঙ্কা চোপড়া এই ভারত সরকারের এহেন কার্যকলাপকেই মহিমান্বিত করে তুলে ধরে বীরত্ব প্রদর্শন করছেন।’’ তিনি আরও লিখেন, ‘‘পাকিস্তানকে দেওয়া ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের পরমাণু হুমকিকেও সমর্থন জানিয়েছেন তিনি। যা একজন শুভেচ্ছা দূতের আচরণ হওয়া উচিত নয়। তাই অবিলম্বে তাঁকে জাতিসংঘের শুভেচ্ছা দূতের পদ থেকে অপসারন না করা হলে, বিশ্বব্যাপী এই পদের গুরুত্ব ক্ষুণ্ণ হবে এবং তা একপ্রকার বিদ্রূপ হয়ে উঠবে সবার কাছে।”

এর আগে ৩৭০ ধারা বাতিলের পর লস অ্যাঞ্জেলসে একটি সুন্দরী প্রতিযোগিতায় প্রিয়াঙ্কাকে পাক মহিলা আয়েশা মালিক হিপোক্রিট বলেছিলেন। বালাকোট বিমান হানার পরই পাকিস্তানের ট্যুইট নিয়ে মন্তব্য করতে গিয়ে একথা বলেন ওই পাক মহিলা। বালাকোটের ঘটনায় ‘জয় হিন্দ’ লিখে ট্যুইট করেছিলেন প্রিয়াঙ্কা। ভারতের সশস্ত্র বাহিনীকে অভিনন্দনও জানিয়েছিলেন তিনি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ