ঢাকা, মঙ্গলবার 10 September 2019, ২৬ ভাদ্র ১৪২৬, ১০ মহররম ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

এরশাদের আসনে ৯ জনের মনোনয়ন দাখিল

রংপুর অফিস : রংপুর-৩ আসনের উপ-নির্বাচনে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এরশাদের পুত্র ও ভাতিজা, আওয়ামী লীগ, বিএনপি সহ বিভিন্ন দলের ৯ জন প্রার্থী গতকাল সোমবার মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।
মনোনয়ন পত্র দাখিলের শেষ দিনে রংপুর আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে আওয়ামী লীগ মনোনীত জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট রেজাউল করিম রাজু, জাতীয় পার্টি মনোনীত প্রার্থী এরশাদপুত্র রাহগীর আল মাহি সাদ ওরফে সাদ এরশাদ, বিএনপি মনোনীত  রিটা রহমান, খেলাফত মজলিসের তৌহিদুর রহমান মন্ডল রাজু, গণফ্রন্টের কাজী শহিদুল্লাহ, ন্যাশনাল পিপলস পার্টির রংপুর জেলার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শফিউল আলম এবং বাংলাদেশ কংগ্রেস দলের মোহাম্মদ একরামুল হক মনোনয়নপত্র জমা দেন। এছাড়া স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে এরশাদের ভাতিজা রংপুর জেলা জাতীয় পার্টির সাবেক সদস্য সচিব ও সাবেক সংসদ সদস্য হোসেন মকবুল শাহরিয়ার আসিফ ওরফে আসিফ শাহরিয়ার এবং মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি কাওছার জামান বাবলা মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন। জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব ও রংপুর মহানগরের সাধারণ সম্পাদক এস এম ইয়াসীর, জেলা জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক এস এম ফখর-উজ-জামান জাহাঙ্গীর এবং মহানগর আওয়ামী লীগের শ্রম বিষয়ক সম্পাদক এম এ মজিদ মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করলেও শেষ পর্যন্ত তারা জমা দেননি। রংপুর আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং কর্মকর্তা জিএম সাহাতাব উদ্দিন জানান, আগামীকাল বুধবার  মনোনয়ন যাচাই-বাছাই এবং ১৬ সেপ্টেম্বর প্রত্যাহারের শেষ দিন। আর ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে ৫ অক্টোবর
মনোনয়ন দাখিল করলেন এরশাদ পুত্র সাদ
রংপুর-৩ সদর আসনে উপ-নির্বাচনে লড়তে বিশাল শোডাউন নিয়ে জাতীয় পার্টির মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙ্গাকে সাথে নিয়ে মনোনয়ন পত্র দাখিল করলেন জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান মরহুম পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদেও পুত্র রাহগীর আল মাহী সাদ এরশাদ। সোমবার বেলা ২ টা ৪৫ মিনিটে তিনি রংপুর আঞ্চলিক নির্বাচন অফিসে রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে তার মনোনয়নপত্র দাখিল করেন।
 সকাল থেকেই নির্বাচন অফিসের আশেপাশে ভির জমান জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীরা। বেলা পৌনে ৩ টায় বিশাল শোডাউন নিয়ে সাদ এরশাদ নির্বাচন অফিসে আসেন।  এসময় তার সাথে ছিলেন জাতীয় পার্টিল মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙ্গা। তিনি অফিসে প্রবেশ করলেও নির্বাচন কর্মকর্তার রুমে যান নি। নীচের একটি রুমে অপেক্ষা করেন। সাদ এরশাদ রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে জেলা জাতীয় পার্টিও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাফিউল ইসলাম শাফী, স্বেচ্ছাসেবক পার্টির সভাপতি শামীম সিদ্দিকিকে নিয়ে তার মনোনয়ন পত্র দাখিল করে। এর আগে তিনি সৈয়দপুর বিমানবন্দও থেকে এসে পল্লী নিবাসে মহাসচিবসহ এরশাদেও কবর জিয়ারত করেন এবং মাওলানা কারামত আলী জৈনপুরির মাজার জিয়ারত করেন।
আবারো দ্বি-মূখী সংকটে জাতীয় পাটি
রংপুর-৩ (সদর) আসনের উপ-নির্বাচনে জাতীয় পার্টির মনোনয়ন প্রত্যাশি দুই প্রার্থী তাদের সিদ্ধান্ত থেকে সরে দাড়ালেও সরে দাড়াননি পার্টির প্রয়াত প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান এরশাদের ভাতিজা রংপুর জেলা জাতীয় পার্টির সাবেক সাধারণ সম্পাদক  হুসেইন মকবুল শাহারিয়ার আসিফ। ফলে আবারো রংপুরে দ্বি-মূখী সংকটে পড়েছে জাতীয় পার্টি।
গতকাল সোমবার দুপুরে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে রিটার্নিং অফিসার ও আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তার জিএম শাহাতাব উদ্দিনের কাছে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন এরশাদের এই ভাতিজা হুসেইন মকবুল শাহারিয়ার আসিফ। সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে আসিফ বলেন, জাতীয় পার্টির নেতারা তার প্রতি অন্যায় আচরণ করবে বুঝতে পেরেই তিনি দলীয় মনোনয়ন চাননি। এমনকি আবেদন পর্যন্ত করেননি। তবে দলের বেশিরভাগ নেতাকর্মী তার সঙ্গে আছে বলে দাবি করেছেন। তিনি বলেন, ‘বহিরাগত সাদ বা যাকেই মনোনয়ন দেওয়া হোক না কেন আমি জয়ী হবো।’এদিকে সোমবার দুপুরে সেন্ট্রাল রোডস্থ দলীয় কার্যালয়ে এক কর্মী সভার মধ্যদিয়ে উপ-নির্বাচন থেকে সরে দাড়ানো ঘোষণা দেন জাতীয় পার্টির যূগ্ম মহাসচিব ও রংপুর মহানগর সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ মোহাম্মাদ ইয়াসির। এ সময় তিনি বলেন, আমার জনপ্রিয়তা যতই থাকুক না কেন, ইভিএমে কারচুপি হতে পারে। আর এই কারচুপি প্রতিরোধ করা আমার পক্ষে সম্ভব নয়। তাই আমি এ নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালাম।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ