ঢাকা, বৃহস্পতিবার 12 September 2019, ২৮ ভাদ্র ১৪২৬, ১২ মহররম ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

বৃষ্টির জন্য কৃত্রিম মেঘ তৈরি করছে মালয়েশিয়া 

১১ সেপ্টেম্বর, ইন্টারনেট : বৃষ্টির জন্য কৃত্রিম মেঘ তৈরির প্রস্তুতি নিচ্ছে মালয়েশিয়া। প্রতিবেশী ইন্দোনেশিয়ায় বনে অগ্নিকা-ের কারণে মালয়েশিয়ার বাতাস দূষিত হয়ে যাচ্ছে। ফলে তা মালয়েশিয়ার বাসিন্দাদের জন্য অস্বাস্থ্যকর হয়ে উঠছে। এ কারণেই কৃত্রিম মেঘ তৈরি করে বৃষ্টির ব্যবস্থা করা হচ্ছে বলে স্থানীয় এক কর্মকর্তা নিশ্চিত করেছেন। শুকনো মৌসুমে ইন্দোনেশিয়ার পাম অয়েলসহ বিভিন্ন শস্যের জমিগুলো পরিষ্কারের জন্য আগুন লাগানো হয়। এতে চারদিকে ধোঁয়া ছড়িয়ে পড়ে। দক্ষিণপূর্ব এশিয়ার অনেক দেশেই এমন ঘটনা দেখা যায়। এতে বাতাস দূষিত হয়। এর ফলে প্রতিবেশী দেশগুলোর বাতাসও দূষিত হয়ে পড়ে। গত কয়েকদিন ধরেই মালয়েশিয়ার বোর্নো দ্বীপের পূর্বাঞ্চলীয় সারাওয়াকের বাতাস দূষিত হয়ে পড়েছে। বেশ কিছু স্থানে দূষণের মাত্রা এতটাই বেড়েছে যে তা স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর হয়ে উঠছে। সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে কুচিং এলাকা। সেখানে প্রায় পাঁচ লাখ মানুষ বসবাস করে।

স্থানীয় এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, কালো ধোঁয়া কমিয়ে আনতে কৃত্রিম মেঘ তৈরি করে বৃষ্টির ব্যবস্থা করতে যাচ্ছে মালয়েশিয়া। বর্তমানে সবকিছু স্বাভাবিক রয়েছে। বিমানে করে রাসায়নিক পদার্থ ছড়িয়ে দেয়া হবে যাতে করে মেঘ তৈরি হয় এবং তা থেকেই বৃষ্টি হবে। তিনি বলেন, চলতি বছর ধোঁয়ার পরিমাণ বেড়ে গেছে এবং তা খারাপের দিকে যাচ্ছে। বিভিন্ন স্থানের বাসিন্দারা মুখে মাস্ক পরে চলাফেরা করছেন। আমরা আমাদের স্বাস্থ্যের বিষয়গুলোর সঙ্গে কোনো ধরনের আপোষ করতে পারি না। আমরা এর সমাধান চাই। কৃষি জমিতে আগুন ধরিয়ে পরিষ্কার করার ঘটনা বন্ধ করতে গত মাসেই অতিরিক্ত কর্মী নিয়োগ করেছে ইন্দোনেশিয়া। প্রতিবেশী দেশগুলোর চাপে পড়ে ইন্দোনেশিয়ার নেতা জোকো উইদোদো গত মাসে সতর্ক করে বলেছেন, বন ও কৃষিজমিতে আগুন দেয়ার ঘটনা বন্ধ করতে না পারলে কর্মকর্তাদের বরখাস্ত করা হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ