ঢাকা, বৃহস্পতিবার 19 September 2019, ৪ আশ্বিন ১৪২৬, ১৯ মহররম ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

জাস্টিন ট্রুডো কি বিপদে আছেন?

১৮ সেপ্টেম্বর, বিবিসি : সত্যিকারের পরিবর্তনের অঙ্গীকার করে চার বছর আগে বিশাল এক বিজয়ের মাধ্যমে ক্ষমতায় আসেন জাস্টিন ট্রুডো।লিবারেল পার্টির এই নেতা এবং তার দল কি আবারও কানাডার জনগণের সমর্থন আদায় করতে পারবে, এ নিয়ে দেশটিতে নানা জল্পনা-কল্পনা চলছে।

শপথগ্রহণ করার দিনই যেদিন ট্রুডো তার মন্ত্রিসভায় নারী-পুরুষের সমান অংশগ্রহণের কারণে বিশ্বের সংবাদমাধ্যমে শিরোনাম হয়েছিলেন।

যা তার দলের প্রধান গুরুত্বপূর্ণ লক্ষ্য বলে তিনি প্রমাণ করতে চেয়েছিলেন। এটি ছিল ট্রুডোর মধুচন্দ্রিমার শুরু।

এর পরে প্রধানমন্ত্রী ট্রুডো বারাক ওবামার সঙ্গে সেলফি তুলেছেন, ভোগ ম্যাগাজিনের বিশেষ প্রতিবেদনের বিষয় হয়েছেন, যেখানে তাকে কানাডার রাজনীতির নতুন তরুণ মুখ বলে বর্ণনা করা হয়েছে।

পরে ডোনাল্ড ট্রাম্প যখন দক্ষিণের দেশ যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হলেন, তখন রোলিং স্টোন ম্যাগাজিনের একটি প্রচ্ছদে প্রত্যাশা করা হয় যে, মুক্ত বিশ্বের নতুন নেতা হতে পারেন ট্রুডো- যিনি আমেরিকান প্রেসিডেন্টের নতুন ধরনের জাতীয়তাবাদের বিপক্ষে, জলবায়ু পরিবর্তনের পদক্ষেপ নেয়ার ব্যাপারে জোরালো কণ্ঠ এবং সামাজিক নানা বিষয়, অভিবাসনের পক্ষে প্রগতিশীল চিন্তাভাবনা ধারণ করেন।কিন্তু ২০১৯ সালে এসে এখনকার ভোটাররা ট্রুডোর লিবারেলকে আর চার বছর আগের মতো করে দেখেন না।তখন দেশটি প্রায় এক দশক ধরে রক্ষণশীল নেতা স্টিফেন হারপারের নেতৃত্বে পরিচালিত হয়েছে এবং ভোটাররা অনেকটা সংক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছিল।তখন পরিবর্তনের জন্য সত্যিই একটা মনোভাব তৈরি হয়েছিল যে, হারপারের শাসন থেকে বেরিয়ে আসতে হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ