ঢাকা, সোমবার 30 September 2019, ১৫ আশ্বিন ১৪২৬, ৩০ মহররম ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

মঠবাড়িয়ায় যৌতুকের জন্য নির্যাতনে আহত গৃহবধূর মৃত্যু

মঠবাড়িয়া (পিরোজপুর) সংবাদদাতা : পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলার যৌতুকের জন্য নির্যাতনে গুরুতর আহত রুবি বেগম (৩০) নামের এক গৃহবধূর চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয়েছে। নিহত রুবি বেগমের বাবা রফিজ উদ্দিন বেপারি রুবির স্বামী হারুন খানকে (৪৫) আসামি করে ছয় জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করেন। পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার খাস হাওলা গ্রামের হারুন খানের সঙ্গে নয় বছর আগে একই উপজেলার নলবুনিয়া গ্রামের রফিজ উদ্দিন বেপারির মেয়ে রুবি বেগমের বিয়ে হয়। ওই দম্পতির দুই সন্তান রয়েছে। বিয়ের পর থেকে হারুন খান স্ত্রী রুবি বেগমকে যৌতুকের জন্য মারপিট করতেন। সম্প্রতি হারুন খান এক লাখ টাকা যৌতুক দাবি করলে রুবি বেগম বাবার বাড়ি থেকে ওই টাকা এনে দিতে অস্বীকৃতি জানান। ১২ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় হারুন খান ও তাঁর পরিবারের লোকজন রুবি বেগমকে মারপিট করেন। এতে তাঁর পাজরের হাড় ভেঙে যায়। খবর পেয়ে পরদিন রফিজ উদ্দিন বেপারির মেয়ের শ্বশুর বাড়ি যান। এরপর অসুস্থ রুবি বেগমকে পার্শবর্তী কাঁঠালিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। এরপর চিকিৎসকের পরামর্শে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেন। এরপর তাঁর শারীরিক অবস্থায় অবনতি হলে সাভারের সিআরপিতে ভর্তি করা হয়। গত শনিবার সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। মঠবাড়িয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দ আব্দুল্লাহ বলেন, এ ঘটনায় মামলা নেওয়া হয়েছে। আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ