ঢাকা, মঙ্গলবার 8 October 2019, ২৩ আশ্বিন ১৪২৬, ৮ সফর ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

গোবিন্দগঞ্জে কিডনী পাচার চক্রের ২ সদস্য আটক

গোবিন্দগঞ্জ (গাইবান্ধা) সংবাদদাতা, ৭ অক্টোবর: গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে কিডনী ক্রয় বিক্রয় চক্রের ২সদস্যকে আটক করেছে। আটককৃতরা হলো উপজেলা বরট্্র গ্রামের বাচ্চা মিয়ার ছেলে জিয়াউর রহমান জিয়া (৩৯) ও তেলিহার গ্রামের মৃত ছহির উদ্দিনের ছেলে  আব্দুর রহিম উদ্দিন(৩৭)। স্থানীয়রা জানায়, দীর্ঘদিন যাবৎ সীমান্তবর্তী জয়পুরহাট জেলার কালাই উপজেলা সংলগ্ন গোবিন্দগঞ্জের রাজাহার ও শাখাহার ইউনিযনের বিভিন্ন গ্রামে একটি দালাল চক্র মোটা অংকের টাকা দেয়ার প্রলোভনে গ্রামের সহজ সরল নিরীহ মানুষের কাছ থেকে কিডনী বেচা কেনা করে আসছে। এর প্রেক্ষিতে গাইবান্ধা জেলা পুলিশ সুপার তৌহিদুল ইসলামের নির্দেশে গোবিন্দগঞ্জ থানা পুলিশ তৎপর হয়ে ওঠে এবং গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ বৃহস্পতিবার অভিযান চালিয়ে আব্দুর রহিমকে আটক করে। এরপর শুক্রবার সন্ধায় বৈরাগীহাট পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ ইন্সপেক্টর ইমরান রুবেলের নেতৃত্বে পুলিশ অভিযান চালিয়ে উপজেলার শাখাহার ইউনিয়নের বরট্ট এলাকা থেকে কিডনি ক্রয়-বিক্রয় চক্রের আন্তঃদেশীয় অন্যতম সদস্য  জিয়াউর রহমান জিয়াকে আটক করে। গোবিন্দগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ একেএম মেহেদী হাসান জানান, আটক জিয়া এই এলাকার হযরত নামে জনৈক ব্যক্তিকে কিডনি বিক্রির জন্য চাপ প্রদান ও উৎসাহিত করে ঢাকায় নিয়ে সিন্ডিকেটের নিকট হস্তান্তর করার মামলার অন্যতম আসামী এবং কিডনি ক্রয়-বিক্রয় চক্রের এই এলাকার আন্তঃদেশীয় অন্যতম সদস্য। অপর আটক  রহিমের  বিরুদ্ধে গরীব নিরীহ মানুষদের মোটা অংকের টাকার লোভ দেখিয়ে কিডনি বিক্রয়ে উৎসাহিত করাসহ  দেশে ও দেশের বাইরে নিয়ে অপারেশনের মাধ্যমে তাদের কিডনী অপসারণ কাজে সহায়তা করার অভিযোগ রয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় মামলা দয়ের হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ