ঢাকা, শুক্রবার 25 October 2019, ১০ কার্তিক ১৪২৬, ২৫ সফর ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

ক্যানসার থেকে মুক্তি পেলো মায়ের ফেলে যাওয়া শিশু

২৪ অক্টোবর, সংবাদ প্রতিদিন : ভারতের কলকাতায় মেডিকেল কলেজের পেডিয়াট্রিক সার্জারি বিভাগে সন্তানের ক্যানসার হয়েছে ভেবে হাসপাতালের বিছানায় ফেলে রেখেই পালিয়ে গেছিলেন মা। কিন্তু ধীরে ধীরে ক্যানসারকে হারিয়ে সেই শিশু এখন সম্পূর্ণ সুস্থ। সেই ছোট্ট শিশুটি এখন পুরোপুরি ক্যানসারমুক্ত।

ঘটনাটি দুই বছর আগের, ২০১৭ সালের অক্টোবর মাসে ভারতের কলকাতা মেডিকেল কলেজের ইডেন বিল্ডিংয়ে ভূমিষ্ঠ হয় এক ফুটফুটে কন্যা সন্তান। কিন্তু দেখা যায় তার শরীরের কক্সিয়াল অংশে অর্থাৎ মেরুদণ্ডের একদম নিচে প্রকাণ্ড এক টিউমার। চিকিৎসকরা জানান ওই টিউমারে ক্যানসারের সেল রয়েছে। বেশিদিন না বাঁচার সম্ভাবনাই বেশি। সেই ভয়ে সন্তানকে ফেলে রেখেই উধাও হয়ে যান মা। কিন্তু হাল ছাড়েননি মেডিকেল কলেজের চিকিৎসকরা। বায়োপসি করে দেখা যায় মস্তিষ্কের ক্যানসারের বিরলতম এক কোষ রয়েছে ওই টিউমারে। অস্ত্রোপচার করে বাদ দেয়া হয় সেই টিউমার। শুরু হয় কেমোথেরাপি কিন্তু আরও একটি টিউমার ধরা পরে শিশুটির শরীরে। পরীক্ষা করে দেখা যায়, শিশুটির পেটের ভিতরেও একটি ক্যান্সার সেল-সহ টিউমার দ্রুত বাড়ছে। এদিকে কেমোথেরাপির যন্ত্রণা সহ্য করতে পারছিলো না শিশুটি। তার এই কষ্ট দেখতে পারছিলেন না চিকিৎসকরাও। আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেয়া হয় কেমো বন্ধ করে দেয়া হবে। ধরে নেয়া হয় মরণ এই ক্যানসার থেকে শিশুটির মৃত্যুই যখন অবধারিত তখন তাকে আরও কষ্ট দেয়ার মানে হয় না।

কিন্তু এরপরই ঘটে যায় এক আশ্চর্যজনক ঘটনা। কেমো বন্ধ করার পর থেকেই দ্রুত ছোট হতে থাকে পেটের ভিতরের টিউমার। পরে পরীক্ষা করে দেখা যায় তা উধাও হয়ে গেছে। চিকিৎসা বিজ্ঞানে এমন ঘটনা বিরলতম বলেই জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। তবে ৫ বছর বয়স না হওয়া পর্যন্ত বলা যাবে না সে সম্পূর্ণ বিপদমুক্ত কি না।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ