ঢাকা, শুক্রবার 8 November 2019, ২৪ কার্তিক ১৪২৬, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

লেভানদোভস্কি-পেরিসিচের গোলে শেষ ষোলোয় বায়ার্ন

শুরু থেকে একের পর এক আক্রমণ করেও মিলছিল না গোলের দেখা। দ্বিতীয়ার্ধে দলের ত্রাতা হয়ে এলেন দারুণ ছন্দে থাকা ফরোয়ার্ড রবের্ত লেভানদোভস্কি। শেষ মুহূর্তে ব্যবধান বাড়ালেন ইভান পেরিসিচ। অলিম্পিয়াকোসকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলোয় পৌঁছে গেল বায়ার্ন মিউনিখ। ‘বি’ গ্রুপে ঘরের মাঠে বুধবার ২-০ গোলে জেতে জার্মান চ্যাম্পিয়নরা। চলতি আসরে এ নিয়ে টানা চতুর্থ জয় পেল তারা। দারুণ এই জয়ে অন্তর্বর্তীকালীন কোচ হানসি ফ্লিকের শুরুটাও বেশ হলো। প্রথমার্ধে প্রতিপক্ষের জালে ১২টি শট নিয়েও গোলের দেখা পায়নি স্বাগতিকরা। বিরতির পরও আক্রমণের ধারা ধরে রাখে বায়ার্ন। ৬৯তম মিনিটে ডান প্রান্ত দিয়ে কিংসলে কোমানের বাড়ানো ক্রসে পা ছুঁইয়ে লক্ষ্যভেদ করেন ছোট ডি-বক্সের মধ্যে থাকা পোলিশ স্ট্রাইকার লেভানদোভস্কি। বায়ার্নের হয়ে বুন্ডেসলিগা ও চ্যাম্পিয়ন্স লিগ মিলে চলতি মওসুমে ১৪ ম্যাচ খেলে সবকটিতেই জালের দেখা পেলেন তিনি। 

 

মওসুমে তার মোট গোল হলো ২০টি। ৮৯তম মিনিটে প্রতি আক্রমণ থেকে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন পেরিসিচ। প্রতিপক্ষ রক্ষণ বিপদমুক্ত করতে ব্যর্থ হলে ফাঁকায় বল পেয়ে বাঁ পায়ের উঁচু শটে জাল খুঁজে নেন ক্রোয়েশিয়ার মিডফিল্ডার। চার ম্যাচের সবকটিতে জিতে ১২ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপের শীর্ষে রয়েছে বায়ার্ন। অলিম্পিয়াকোসের পয়েন্ট ১। ইন্টারনেট।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ