ঢাকা, শুক্রবার 8 November 2019, ২৪ কার্তিক ১৪২৬, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

জয়ের জন্য ভারতকে ১৫৪ রানের টার্গেট বাংলাদেশের

স্পোর্টস রিপোর্টার : দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচে ভারতকে আরো বড় টার্গেট দিতে পারত বাংলাদেশ। কিন্তু শুরুর মতো ব্যাটিংয়ের শেষটা না হওয়ায় সেটা আর হয়নি। তারপরও জয়ের জন্য ভারতকে ১৫৪ রানের কঠিন টার্গেট দিয়েছে টাইগাররা। গতকাল আগে ব্যাট করতে বাংলাদেশ ৬ উইকেটে করে ১৫৩ রান। ফলে জয়ের জন্য ভারত পায় ১৫৪ রানের টার্গেট। রাজকোটে ভারতের বিপক্ষে দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে টস হেরে আগে ব্যাটিংয়ের সুযোগ পায় বাংলাদেশ। টসে হারলেও ব্যাট করতে নেমে শুরুটা দারুণ করে টাইগাররা। দু-ওপেনার লিটন দাস আর মোহাম্মদ নাইম মিলে ওপেনিং জুটিতে বাংলাদেশকে নিয়ে যায় ৬০ রানে। তবে রান আউটের ফাদে পড়ে লিটন দাসের বিদায়ে রানের গতিটা একটু কমে যায়। প্রথমে লাইফ পেয়েও নিজের ইনিংসটা আরো বড় করতে পারেননি লিটন দাস। ষষ্ঠ ওভারে পান্তের ভুলে লাইফ পান লিটন। যুজবেন্দ্র চাহালের বলে স্টাম্পিংয়ের সুযোগ ছিল পান্তের। কিন্তু স্টাম্পের আগে বল গ্লাভসবন্দী করে স্টাম্প ভাঙাতে বেঁচে যান লিটন। তবে অষ্টম ওভারে সেই পান্তের থ্রোতেই রান আউট হয়ে ফিরে গেছেন লিটন। বিদায়ের আগে ২১ বলে লিটন করেন ২৯ রানে। যার মধ্যে ছিল চারটি চারের মার। লিটন আউট হলেও ভারতের বিপক্ষে আধিপত্য বিস্তার করে খেলেছেন মোহাম্মদ নাইম। বিপজ্জন হয়ে উঠা নাইমকে দলীয় ৮৩ রানে ফিরিয়ে স্বস্তি ফেরায় ভারত। ফলে দলীয় ৮৬ রানে বাংলাদেশ হারায় দ্বিতীয় উইকেট। ওয়াশিংটন সুন্দরের বলে শ্রেয়াস আয়ারের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরেন নাইম। আউট হওয়ার আগে ৩১ বলে ৫ চারে নাইম করেন ৩৬ রান। তার বিদায়ের পর ছন্দ পতন ঘটেছে বাংলাদেশের। দ্রুত ঘটেছে উইকেটের পতন। ব্যাট করতে নেমে প্রথম ম্যাচের জয়ের নায়ক মুশফিকুর রহীম এই ম্যাচে মোটেও ভালো করতে পারেননি। আউট হয়েছেন মাত্র চার রান করে। চাহালের বলে পান্ডিয়াকে ক্যাচ দিয়ে আউট হন মুশফিক। দলকে শতরানে নিয়ে টিকতে পারেননি সৌম্য সরকারও। দলীয় ১০৩ রানে চাহালের বলে স্টাম্পিংয়ে ফিরতে হয় তাকে। এবার অবশ্য আর কোনো ভুল করেননি ভারতীয় উইকেটকিপার। আউট হওয়ার আগে সৌম্য সরকার ২০ বলে করেন ৩০ রান। যার মধ্যে ছিল ২টি চার আর একটি ছক্কার মার। ফলে ১০৩ রানে বাংলাদেশ হারায় প্রথম চার উইকেট। ব্যাট করতে নেমে আফিফ হোসেন ভালো না করলেও অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ২১ বলে ৩০ রানের একটি ইনিংস খেলে দলকে এগিয়ে নেয়া চেষ্টা করেন। কিন্তু দলীয় ১৪৩ রানে রিয়াদের বিদায়ে স্কোরটা আর বড় করতে পারেনি বাংলাদেশ। শেষ পর্যন্ত বাংলাদেশের স্কোরটা থেমে যায় ১৪৬ রানে। মোসাদ্দেক ৭ রানে আর আমিনুল ৫ রানে অপরাজিত ছিলেন। ভারতের পক্ষে চাহাল নেন দুটি উইকেট।

বাংলাদেশ একাদশ : লিটন দাস, সৌম্য সরকার, মোহাম্মদ নাইম, মুশফিকুর রহীম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ (অধিনায়ক), মোসাদ্দেক হোসেন, আফিফ হোসেন ধ্রুব, আমিনুল ইসলাম বিপ্লব, মোস্তাফিজুর রহমান, আল আমিন হোসেন, শফিউল ইসলাম।

ভারতীয় একাদশ : রোহিত শর্মা (অধিনায়ক), শিখর ধাওয়ান, লোকেশ রাহুল, শ্রেয়াস আয়ার, রিশাভ পান্ত, শিভাম দুবে, ক্রুনাল পান্ডিয়া, ওয়াশিংটন সুন্দর, ইয়ুজবেন্দ্র চাহাল, দীপক চাহার, খলিল আহমেদ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ