ঢাকা, শুক্রবার 13 December 2019, ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৫ রবিউস সানি ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

নিষেধাজ্ঞা এড়াতে তুরস্ককে এস-৪০০ ত্যাগ করতে হবে: ওয়াশিংটন

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক:আমেরিকার সঙ্গে মতবিরোধের অবসান ঘটাতে হলে তুরস্ককে রাশিয়ায় তৈরি এস-৪০০ আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ত্যাগ করতে হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছে ওয়াশিংটন। মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন কর্মকর্তা বৃহস্পতিবার ওই হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছেন, তা না হলে আমেরিকার নয়া ফেডারেল আইন অনুযায়ী তুরস্কের বিরুদ্ধে অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হবে।

গত সপ্তাহে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোগান আমেরিকা সফর করেন এবং হোয়াইট হাউজে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। ট্রাম্প ওই সাক্ষাৎকে ‘চমৎকার’ বলে বর্ণনা করলেও তাতে এস-৪০০ নিয়ে আলোচনায় কোনো অগ্রগতি হয়েছে কিনা তা জানা যায়নি।

মার্কিন কর্মকর্তা সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, “তুরস্কের সামনে আমেরিকার সঙ্গে আলোচনায় বসার সুযোগ রয়েছে। আর সেজন্য আঙ্কারাকে এস-৪০০ ব্যবস্থা থেকে বেরিয়ে আসতে হবে।” তিনি এ সময় তুরস্কের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের হুমকির কথা আরেকবার উচ্চারণ করেন।

গত সপ্তাহে হোয়াইট হাউজে ট্রাম্পের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন এরদোগান

গত জুলাই মাসে তুরস্ক রাশিয়ার কাছ থেকে অত্যাধুনিক আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা এস-৪০০’র প্রথম চালান গ্রহণ করে। এরপর ২৭ আগস্ট এটির দ্বিতীয় চালান আঙ্কারার কাছে হস্তান্তর করে মস্কো। তবে এখনো এসব ক্ষেপণাস্ত্র মোতায়েন বা সক্রিয় করা হয়নি।

ওয়াশিংটন অভিযোগ করছে, ন্যাটো জোটের সদস্য দেশ হয়ে তুরস্ক রাশিয়ার সামরিক সরঞ্জাম কিনতে পারে না। এ ছাড়া, এই ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা আমেরিকায় নির্মিত এফ-৩৫ জঙ্গিবিমানের জন্য মারাত্মক হুমকি সৃষ্টি করবে। তবে আমেরিকার চাপ সত্ত্বেও তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত চাভুসওগ্লু এর আগে বলেছিলেন, মার্কিন হুঁশিয়ারি সত্ত্বেও তার দেশ এস-৪০০ ব্যবস্থা চালু করবে।- পার্স টুডে

ডিএস/এএইচ

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ