ঢাকা, রোববার 21 October 2012, ৬ কার্তিক ১৪১৯, ৪ জিলহজ্জ ১৪৩৩ হিজরী
Online Edition

সীমান্তে হত্যাকে মৃত্যু বলে চালিয়ে দেয়া জনগণ মানে না

গণতান্ত্রিক বাম মোর্চার নেতৃবৃন্দ গতকাল শনিবার এক সমাবেশে সীমান্তে ভারতীয় সীমান্ত রক্ষী বাহিনী কর্তৃক প্রায় প্রতিদিন বাংলাদেশী নাগরিকদের হত্যার ঘটনা বন্ধ না করে উল্টো ভারতীয় কর্তৃপক্ষের একে হত্যাকান্ড না বলে ‘মৃত্যু' বলে চালিয়ে দেয়ার চরম স্বেচ্ছাচারী, প্রতারণামূলক ও ঔদ্ধত্যপূর্ণ তৎপরতার তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়েছেন। একইসাথে নেতৃবৃন্দ এইরকম ঔদ্ধত্যপূর্ণ বক্তব্যের পরও বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নীরব ভূমিকায় তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। গতকাল শনিবার বিকেলে প্রেসক্লাবের সামনে এই সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশ শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। মোর্চার সমন্বয়ক গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকির সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সাইফুল হক, মোশরেফা মিশু, অধ্যাপক আবদুস সাত্তার, নজরুল ইসলাম, হামিদুল হক, মহিনউদ্দীন চৌধুরী লিটন প্রমুখ।

ভারতের স্বরাষ্ট্র সচিবের বক্তব্যের কঠোর সমালোচনা করে সমাবেশে নেতৃবৃন্দ বলেন, ভারতীয় স্বরাষ্ট্র সচিবের বক্তব্য ঔদ্ধত্যপূর্ণ ও চরমতম তামাশার প্রকাশ। তারা বিনা বিচারে গুলী করে মানুষ হত্যা করবে অথচ তাকে হত্যা বলা যাবে না বলতে হবে মৃত্যু। এরকম আবদার কস্মিনকালেও কেউ শোনেননি। বৃহৎ রাষ্ট্রের ক্ষমতার দম্ভে তারা ন্যায়-অন্যায় বোধ, যুক্তি ইত্যাদি সবই হারিয়ে ধরাকে সরা জ্ঞান করছেন। গত ১৮ অক্টোবর তারা ফুলবাড়ীতে আরও একজনকে হত্যা করেছে। এভাবে হত্যাকান্ড আর চলতে দেয়া যায় না। সরকারের উচিত ছিল রাষ্ট্রের নাগরিকদের নিরাপত্তার বিষয়টিকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিয়ে অবিলম্বে কার্যকর পদক্ষেপ নেয়া। প্রয়োজনে একে জাতীয় গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু হিসাবে মানবাধিকারের বিবেচনায় আন্তর্জাতিক পর্যায়ে উত্থাপন। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ