ঢাকা, রোববার 21 October 2012, ৬ কার্তিক ১৪১৯, ৪ জিলহজ্জ ১৪৩৩ হিজরী
Online Edition

দিঘীনালায় জেএসএস (এমএন লারমা গ্রুপ)-এর দুই সদস্য গুলীবিদ্ধ ঃ ইউপিডিএফের নিন্দা

আব্দুল্লাহ্ আল-মামুন, খাগড়াছড়ি থেকে : খাগড়াছড়ি জেলাধীন দিঘীনালা উপজেলায় জেএসএস সন্তু গ্রুপের সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের গুলীতে জেএসএস এমএন লারমা গ্রুপের দুই সদস্য গুলীবিদ্ধ হয়েছে। গতকাল শনিবার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে মেরুং ইউনিয়নের ১৬নং ভূঁইয়াছড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। আহতরা হলেন-জালবান্দা গ্রামের নন্দ বিকাশ চাকমার ছেলে জামাল চাকমা (২৯) ও চংড়াছড়ি পূর্ণচন্দ্র কার্বারী পাড়ার কিরণ কুমার চাকমার ছেলে মেধাঙ্কর চাকমা (২৬)।

জানা যায়, জামাল চাকমা ও মেধাঙ্কর চাকমা দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে দিঘীনালা থেকে মোটর সাইকেল যোগে মেরুং যাওয়ার পথে ভূঁইয়াছড়া এলাকায় পৌঁছালে আগে থেকে ওঁৎ পেতে থাকা সন্তু গ্রুপের সন্ত্রাসীরা তাদের মোটর সাইকেল লক্ষ্য করে গুলী চালায়। এতে জামাল চাকমার বাম হাতে এবং মেধাঙ্কর চাকমার বাম পায়ে ও বাম হাতে গুলীবিদ্ধ হয়।

এদিকে ইউনাইটেড পিপল্স ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ) দীঘিনালা উপজেলা ইউনিটের সংগঠক চয়ন ত্রিপুরা এক বিবৃতিতে এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন। তিনি সন্তু লারমাকে সরকারের দালাল ও জাতীয় দুশমন আখ্যায়িত করে বলেন, ‘সন্তু লারমা ২২ সেপ্টেম্বর রাঙামাটিতে পাহাড়িদের ওপর বর্বর হামলার পরও কোন কর্মসূচি না দিয়ে বরিশালে পালিয়ে যান, অথচ ইউপিডিএফ ও জেএসএস এম. এন. লারমা দলের নেতাকর্মী ও সমর্থকদের ওপর একের পর এক সশস্ত্র হামলা চালিয়ে যাচ্ছেন।' তিনি সন্তু লারমার সন্ত্রাসী বাহিনীর বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহবান জানান।

দিঘীনালা থানার অফিসার ইনচার্জ শাহাদাৎ হোসেন টিটু বলেন, ঘটনাস্থল থেকে আহতদের উদ্ধার করে প্রথমে দিঘীনালা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে আশঙ্কাজনক অবস্থায় খাগড়াছড়ি আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠিয়েছি। তবে কেউ কোন অভিযোগ না করায় এব্যাপারে কোন মামলা হয়নি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ