শুক্রবার ০৩ জুলাই ২০২০
Online Edition

সরকারি দলের মেয়র প্রার্থীকে বিজয়ী করার উদ্দেশ্যেই নেতা-কর্মীদের অন্যায়ভাবে গ্রেফতার করা হয়েছে -ডাঃ শফিকুর রহমান

গাজীপুর সিটি করপোরেশনের নির্বাচনে ২০ দলীয় জোটের মেয়র প্রার্থীর এক নির্বাচনী সভা থেকে গত ২৭ এপ্রিল সকালে গাজীপুর মহানগরী জামায়াতের আমীর অধ্যক্ষ এস.এম সানাউল্লাহসহ জামায়াতের ৪৫ জন নেতা-কর্মীকে পুলিশের অন্যায়ভাবে গ্রেফতার করার ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান। বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর সেক্রেটারি জেনারেল ডাঃ শফিকুর রহমান বলেন, গত ২৭ এপ্রিল গাজীপুর মহানগরী জামায়াতের আমীর অধ্যক্ষ সানাউল্লাহসহ জামায়াতের ৪৫ জন নেতা-কর্মীকে ২০ দলীয় জোটের মেয়র প্রার্থীর নির্বাচনী সভা থেকে পুলিশের অন্যায়ভাবে গ্রেফতার করার ঘটনা সম্পূর্ণ রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। তিনি এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।
গতকাল শনিবার দেয়া বিবৃতিতে তিনি বলেন, নির্বাচনী সভা থেকে জামায়াতে ইসলামীর নেতা-কর্মীদের আটক করার ঘটনার দ্বারাই প্রমাণিত হচ্ছে যে, গাজীপুরে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের কোনো পরিবেশ নেই। সরকারি দলের মেয়র প্রার্থীকে বিজয়ী করার উদ্দেশ্যেই গাজীপুরে জামায়াতের নেতা-কর্মীদের অন্যায়ভাবে গ্রেফতার করা হয়েছে।
তিনি বলেন, অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে নৌকার মেয়র প্রার্থীর ভরাডুবি হওয়ার আশংকায়ই সরকার ২০ দলীয় জোটের নেতা-কর্মীদের অন্যায়ভাবে গ্রেফতার করে নির্বাচনের পরিবেশ বিনষ্ট করছে। এ থেকে বুঝা যাচ্ছে যে, সরকার তাদের ইচ্ছামত নীলনক্সার একতরফা নির্বাচনের ষড়যন্ত্র করছে। সরকারের ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে প্রতিবাদে সোচ্চার হওয়ার জন্য তিনি সকলের প্রতি আহ্বান জানান।
অবিলম্বে অধ্যক্ষ এসএম সানাউল্লাহসহ জামায়াতের সকল নেতা-কর্মীকে নিঃশর্তভাবে মুক্তি দেয়ার জন্য তিনি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানান।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ