সোমবার ২৫ মে ২০২০
Online Edition

সরকার আব্দুল কাদের মোল্লাকে অন্যায়ভাবে হত্যা করে রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করেছে -ডা. শফিকুর রহমান

আগামীকাল ১২ ডিসেম্বর জামায়াতে ইসলামীর সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল বিশিষ্ট বুদ্ধিজীবী ও সাংবাদিক শহীদ আব্দুল কাদের মোল্লার শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষে জামায়াতে ইসলামীর পক্ষ থেকে ঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী আজ বৃহস্পতিবার সারাদেশে শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ মিছিল এবং কাল শুক্রবার দোয়া দিবস ও ইয়াতিম এবং দুঃস্থদের মধ্যে খাবার বিতরণের কর্মসূিচ সফল করার জন্য সংগঠনের সকল শাখার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন জামায়াতে ইসলামীর ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি জেনারেল ডা. শফিকুর রহমান। গতকাল বুধবার এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, আগামীকাল ১২ ডিসেম্বর জামায়াতে ইসলামীর সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল বিশিষ্ট বুদ্ধিজীবী ও সাংবাদিক শহীদ আব্দুল কাদের মোল্লার শাহাদাত বার্ষিকী। ২০১৩ সালের ১২ ডিসেম্বর সরকার তাঁকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছে। বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীকে নেতৃত্ব শূন্য করার জন্য জামায়াতে ইসলামীর নেতৃবৃন্দের বিরুদ্ধে কথিত মানবতাবিরোধী অপরাধের মিথ্যা অভিযোগে সরকার মিথ্যা মামলা দায়ের করে এবং সাজানো মিথ্যা সাক্ষী দেওয়ায়ে আবদুল কাদের মোল্লাকে মৃত্যুদন্ডে দন্ডিত করা হয়েছে। বাংলাদেশের জনগণ এবং জাতিসংঘ, ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, অষ্ট্রেলিয়া ও তুরস্কসহ বিভিন্ন গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র এবং আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা ও সংগঠন আব্দুল কাদের মোল্লার ফাঁসি স্থগিত রাখার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছিল। কিন্তু সরকার সকল আহ্বান অগ্রাহ্য করে তাঁকে অন্যায়ভাবে হত্যা করে রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করেছে।
তিনি বলেন, আব্দুল কাদের মোল্লা মৃত্যুদন্ডের বিরুদ্ধে রিভিউ আবেদন করেছিলেন। তাঁর রিভিউ আবেদন খারিজ করে দেয়া হয়। কিন্তু তাঁকে হত্যা করার ৩৪৮ দিন পর রিভিউ আবেদনের পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশিত হয়। কোন্ গ্রাউন্ডে তাঁর রিভিউ আবেদন খারিজ হলো জনাব আবদুল কাদের মোল্লাকে তা জানার সুযোগ না দিয়ে সরকার তড়িঘড়ি করে তাঁকে ফাঁসি দিয়ে হত্যা করেছে। তাঁকে হত্যা করার প্রায় এক বছর পরে সর্বোচ্চ আদালতের রায়ে তাঁর রিভিউ আবেদন মেনটেনেবল বলা হয়েছে। তড়িঘড়ি করে তাঁকে হত্যা করার ঘটনা থেকে প্রমাণিত হয় যে, সরকার রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করার উদ্দেশ্যেই তাঁকে হত্যা করেছে। তাঁকে যথেষ্ট আইনী সুযোগ থেকে বঞ্চিত করা হয়েছে। 
শহীদ আব্দুল কাদের মোল্লার শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষে জামায়াতে ইসলামীর পক্ষ থেকে ঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী আজ বৃহস্পতিবার সারাদেশে শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ মিছিল, শুক্রবার ১২ ডিসেম্বর দোয়া দিবস ও ইয়াতিম এবং দুঃস্থদের মধ্যে খাবার বিতরণের কর্মসূচি সফল করার জন্য তিনি সংগঠনের সকল শাখার প্রতি আহ্বান জানান এবং দেশবাসীর সহযোগিতা কামনা করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ