বুধবার ০৩ জুন ২০২০
Online Edition

গ্যাসের দাম বৃদ্ধি অযৌক্তিক ও গণবিরোধী -----মির্জা ফখরুল

 

স্টাফ রিপোর্টার : গ্যাসের দাম দুই দফায় বাড়ানোর প্রতিবাদে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, গ্যাসের দাম বৃদ্ধি অযৌক্তিক ও গণবিরোধী। এ সিদ্ধান্ত জনগণ মানবে না। তিনি বলেন,  কোম্পানি লাভে থাকার পরও গ্যাসের দাম বাড়ানোটা অযৌক্তিক। 

গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ৮.০০টায় গুলশানস্থ বিএনপি  চেয়ারপার্সনের কার্যালয়ে এক জরুরী সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি একথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, আগামী ১ মার্চ থেকে গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির সিদ্ধান্ত অযৌক্তিক ও গণবিরোধী। এ সিদ্ধান্ত জনগণ মানবে না। তিনি অভিযোগ করেন, বল্গাহীনভাবে রাজস্ব আদায় করতেই সরকার গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধি করেছে। এই মূল্যবৃদ্ধির কারণে অল্পসময়ের মধ্যেই বিদ্যুতের দাম আবারও বাড়ানো হতে পারে।

গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে কোনও কর্মসূচি দেয়া হবে কি-না, সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, কর্মসূচির বিষয়ে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

লিখিত বক্তব্যে মির্জা ফখরুল বলেন, গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির এই সিদ্ধান্ত অযৌক্তিক,  নৈতিকতাবিহীন। এতে দেশের অর্থনীতি ভয়াবহ চাপে পড়বে।

মির্জা ফখরুল সরকারের নানা সময়ে বৃদ্ধি করা গ্যাসের মূল্য বিষয়ে তথ্য দিয়ে বলেন, গত আগস্টে বিইআরসিতে গণশুনানি হয়েছিল, ওই শুনানি আবারও গত বছরের ডিসেম্বরে হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু সে শুনানিও অনুষ্ঠিত হয়নি। শুনানি এড়িয়ে গ্যাসের দাম বাড়ানোয় সরকারের সমালোচনা করেন বিএনপির মহাসচিব।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসি) গ্যাসের দাম দুই দফায় গড়ে ২২.৭ শতাংশ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেছে। সে অনুযায়ী, আগামী মার্চ থেকে আবাসিক খাতে দুই চুলার জন্য ৮০০ এবং এক চুলার জন্য ৭৫০ টাকা করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকাল সাড়ে ৪টায় কমিশনের প্রধান কার্যালয়ে এই দাম বৃদ্ধির ঘোষণা দেয়া হয়। দ্বিতীয় ধাপে জুন থেকে আবাসিক খাতে দুই চুলার জন্য ৯৫০ এবং এক চুলার জন্য ৯০০ টাকা করা হয়েছে। এছাড়া বাণিজ্যিক ইউনিট মার্চে ১৪.২০ টাকা এবং জুনে ১৭.০৪ টাকা হবে। আর সিএনজির দাম মার্চে প্রতি ঘনমিটার ৩৮ টাকা ও জুনে ৪০ টাকা করা হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ