বুধবার ১৫ জুলাই ২০২০
Online Edition

স্কুলছাত্রী সাদিয়া হৃৎপিণ্ডের ছিদ্র নিয়ে মৃত্যু’র প্রহর গুনছে

আমতলী সংবাদদাতা: স্কুল ছাত্রী সাদিয়া কি আর কি স্কুলে যাবেনা, বাবা মার স্বপ্ন মেয়ে কে পড়া লেখা করিয়ে মানুষের মত মানুষ করবে সে আশা কি তাদের পূরন হবেনা। এ যন্ত্রণা নিয়ে হাসপাতালে কাতরাচ্ছে, বরগুনার আমতলী উপজেলার চলাভাঙ্গা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণীর ছাত্রী ইসরাত জাহান সাদিয়া।  হৃৎপি-ের ছিদ্র রোগ নিয়ে আর্থিক সংকটের কারণে উন্নত চিকিৎসা করতে না পারায় হাসপাতালের বেডে শুয়ে মৃত্যু’র দিন গুনছে। আমতলী উপজেলার সদর ইউনিয়নের উত্তর টিয়াখালী গ্রামের আসাদুজ্জামান খোকন এর মেয়ে ইসরাত জাহান সাদিয়া। ২০১৪ সালে সাদিয়া অসুস্থ হয়ে পরলে বরিশালের হৃদরোগ চিকিৎসক ডাঃ রনজিৎ খাঁনকে সরণাপন্ন হয়। তিনি সাদিয়ার হার্টের সমস্যার কথা বলেন। তার পরামর্শ অনুসারে পরিবার ঢাকায় জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে নিয়ে যায়।  ওই হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. এবিএম আব্দুস সালাম বলেন সাদিয়ার হৃৎপিণ্ডে ছিদ্র রয়েছে। ওর সার্জারী চিকিৎসা করতে হবে। এর জন্য কমপক্ষে ব্যয় হবে ৪ লাখ টাকা। অসহায় পিতা আসাদুজ্জামান খোকন মেয়ের ব্যয় বহুল চিকিৎসা করতে পারছে না। তিনি তার মেয়েকে বাঁচাতে প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা, স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও দেশের হৃদয়বান মানুষকে হাত বাড়িয়ে দেয়ার জন্য বিনীত অনুরোধ জানিয়েছেন। গত তিন বছর ধরে এ রোগ নিয়ে সাদিয়া বেঁচে আছে। মা ডেইজি বেগম জানান যখনই বেশী অসুস্থ হয়ে পরে তখনই হাসপাতালে এনে ভর্তি করা হয়। বুধবার সন্ধ্যায় বেশী অসুস্থ হয়ে পরলে তাকে পুনরায় আমতলী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সাদিয়ার বাবা আসাদুজ্জামান খোকনের মোবাইল নং-০১৭৭২৯২০১৪১।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ