শুক্রবার ০৫ জুন ২০২০
Online Edition

জয় পেয়েছে শেখ জামাল ॥ আবাহনী প্রাইম ব্যাংক ও গাজী গ্রুপ

 

স্পোর্টস রিপোর্টার : ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের (ডিপিএল) প্রথম রাউন্ডে জয় নিয়ে শুর করলো শেখ জামাল, প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব, আবাহনী ও গাজী গ্রুপ ক্রিকেটাস। পেসার রবেল হোসেনের দুর্দান্ত বোলিংয়ে মোহাম্মদ আশরাফুলের কলবাগান ক্রিড়া চক্রকে ৫ উইকেটে হারিয়েছে প্রাইম ব্যাংক। আগে ব্যাট করতে নামা কলাবাগানকে একাই গুঁড়িয়ে দেন রবেল হোসেন। বিকেএসপির চার নম্বর মাঠে রবেল হোসেনের গতির ঝড়ে কলাবাগান ৪৬.২ ওভারে অলআউট হয় মাত্র ১৮৪ রান। রবেল একাই তুলে নেন ৬টি উইকেট। ৮.২ ওভারে দুই মেডেনে ২১ রান খরচ করেন তিনি। সৌম্য সরকার দুটি আর আল আমিন একটি করে উইকেট তুলে নেন। কলাবাগানের দলপতি ও ওপেনার মোহাম্মদ আশরাফুল ৬ রানে বিদায় নেন। হ্যামিলটন মাসাকাদজা ৩৮, তুষার ইমরান ৪৭, মেহরাব হোসেন জুনিয়র ২১, সঞ্জিত সাহা ২৪, মুক্তার আলি ১৭ রান করেন। ১৮৫ রানের টার্গেটে ব্যাটিংয়ে নেমে প্রাইম ব্যাংকের দলপতি ও ওপেনার মেহেদি মারফ ২১ রান করেন। আরেক ওপেনার সৌম্য সরকার করেন মাত্র ৯ রান। সাব্বির রহমানের ব্যাট থেকে আসে ১৩ রান। ভারতীয় ব্যাটসম্যান উন্মুখ চাঁদ অপরাজিত থাকেন ৬১ রান করে। 

 ভিক্টোরিয়া স্পোর্টিং ক্লাবকে ২ উইকেটে হারিয়ে মৌসুমের প্রথম ম্যাচেই জয় তুলে নিল শেখ জামাল। দলটির সামনে জয়ের জন্য ২১০ রানের সহজ লক্ষ্য থাকলেও তা অর্জনে হারাতে হয়েছে ৮টি উইকেট এবং খেলতে হয়েছে ৪৯.২ ওভার । জামালের এই জয়ের দিনে ব্যাট হাতে দলের হয়ে একাই লড়েছেন নুরল হাসান সোহান। তার ৮০ রানের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে জয়ের বন্দরে নোঙ্গর করে আব্দুর রাজ্জাক ও তার দল। জামালের হয়ে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৩২ রানের ইনিংস খেলেছেন রাজিন সালেহ। টপ অর্ডারের ব্যাটসম্যান ইমরল কায়েস আউট হয়েছেন ব্যক্তিগত ৮ রানে। এদিকে বল হাতে ভিক্টোরিয়ার হয়ে মনির হোসেন ৩টি, আরাফাত সানি ২টি ও মইনুল ইসলাম ও মাহবুবুল ইসলাম নিয়েছেন ১টি করে উইকেট। গতকাল বৃহস্পতিবার ফতুল্লা খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামে আব্দুর রাজ্জাকের শেখ জামালের বিপক্ষে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নামে ভিক্টোরিয়া স্পোর্টিং ক্লাব। তবে ব্যাটিংয়ে নেমে শেখ জামাল স্পিনারদের দাপটে কাঙ্খিত ছন্দে খেলতে পারেনি দলটি। ফারকের ৪৪ ও উত্তম সরকারের ৮৮ রানে ৪৮.২ ওভারে সবক’টি উইকেট হারিয়ে ২০৯ রানের স্বল্প সংগ্রহ পায় ভিক্টোরিয়া স্পোর্টিং ক্লাব। শেখ জামালের হয়ে বল হাতে রাজ্জাক ৪টি, সোহাগ গাজী ৩টি এবং শাহাদাত হোসেন, জিয়াউর রহমান ও ফজলে রাব্বি নিয়েছেন ১টি করে উইকেট। 

সেঞ্চুরি তুলে নেয়ার পাশাপাশি আবাহনীকে জেতাতে দারণ ভূমিকা রেখেছেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের তরণ অলরাউন্ডার মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত। ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের (ডিপিএল) প্রথম ম্যাচে আসরের প্রথম সেঞ্চুরিটি তুলে নিয়েছেন আবাহনীর এই ক্রিকেটার। এই সুবাদে খেলাঘরের বিপক্ষে ৫ উইকেটে দারুণ জয় পেয়েছে তার দল আবাহনী। এদিন, বিকেএসপির ৪ নম্বর মাঠে খেলাঘরের বিপক্ষে মাঠে নামে ঢাকার ঐতিহ্যবাহী ক্লাব আবাহনী লিমিটেড। আবাহনীর হয়ে এ ম্যাচে ১১০ রানের দারুণ এক ইনিংস খেলেছেন মোসাদ্দেক। আর মেষ পর্যন্ত মোসাদ্দেকের সেঞ্চুরিতে ভর করে ৫ উইকেটে জয় পেয়েছে তার দল আবাহনী। 

নাসির হোসেনের অধিনায়কোচিত সেঞ্চুরিতে জয় পেয়েছে গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্স। বৃহস্পতিবার মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবকে ৭ উইকেটে হারিয়েছে গাজী গ্রুপ । সাভারে বিকেএসপির তিন নম্বর মাঠে টস জিতে ফিল্ডিং নেয় গাজী গ্রুপ। ব্যাট করতে নেমে ৭৮ রানে ৪ উইকেট হারায় মোহামেডান। এর পর রহমত শাহ ও মেহেদী হাসান মিরাজের ১১৮ রানের জুটি গড়ায় কিছু স্বস্তি পায় মোহামেডান। রহমত ৭৮ রানে রান আউট হন। আর মিরাজকে ৫২ রানে ফেরান আলাউদ্দিন বাবু। শেষ পর্যন্ত ৫০ ওভারে ৮ উইকেটে ২২০ রান করে তারা। গাজী গ্রুপের পক্ষে মেহেদি ও আলাউদ্দিন ২টি করে উইকেট নেন। লক্ষ্যে নেমে তাইজুল ইসলামের ঘূর্ণিতে ২৫ রানে ২ উইকেট হারায় গাজী গ্রুপ। জহুরল ইসলাম (১) ও মুমিনুল হক (২) দ্রুত মাঠ ছাড়লে নাসির ও এনামুল হক বিজয় হাল ধরেন। অবশ্য ৭৯ রানে এনামুলকে থামতে হয়। ব্যক্তিগত ৫৪ রানে তিনি আউট হন। এর পর অধিনায়কের সঙ্গে পারভেজ রাসুলের অপরাজিত ১৪৪ রানের জুটিতে ৩৭ ওভারে ৩ উইকেট হারিয়ে জয় পায় গাজী গ্রুপ। ম্যাচসেরা নাসির ১০৬ বলে ৯ চার ও ৫ ছয়ে ১০৬ রানে অপরাজিত ছিলেন। আর ৫৩ রানে খেলছিলেন পারভেজ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ