বৃহস্পতিবার ২৮ মে ২০২০
Online Edition

রাজধানীতে তিনজনের অস্বাভাবিক মৃত্যু

স্টাফ রিপোর্টার : রাজধানীর মধ্য বাড্ডায় ট্রাক ধাক্কায় কামাল হোসেন (২৬) নামের এক ট্রাক চালক নিহত হয়েছেন। তার বাড়ি ভোলার লালমোহন উপজেলায়। রোববার  রাত আড়াইটার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। পরে কর্তব্যরত চিকিৎসক ভোর ৪টায় তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
নিহত কামালের সহযোগী রুবেল হোসেন জানায়, কামাল গাবতলী এলাকায় থাকতো। তারা গাবতলী থেকে বালু বোঝাই ট্রাক নিয়ে বাড্ডা যাওয়ার পথে মধ্যবাড্ডা পোস্ট অফিস গলিতে এলে বিপরীতমুখী একটি ট্রাকের সঙ্গে ধাক্কা লাগে। এতে ট্রাক থেকে পড়ে যায় কামাল। পরে তাকে ঢামেক হাসপাতালে নিয়ে এলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ভোর ৪টায় তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
ঢামেক হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এসআই বাচ্চু মিয়া  জানান, ময়নাতদন্তের জন্য লাশ মর্গে রাখা হয়েছে।
হোটেল থেকে লাশ উদ্ধার
মতিঝিল ফকিরাপুল কাঁচাবাজার এলাকায় অবস্থিত আসমা আবাসিক হোটেল এর ২য় তলা থেকে জামাল হোসেন (৫০) নামে এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।
মতিঝিল থানা পুলিশ অচেতন অবস্থায় জামালকে উদ্ধার করে ঢামেকে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক রোববার রাত সাড়ে ১১টায় মৃত ঘোষণা করেন।
আসমা হোটেলের ম্যানেজার জুয়েল মিয়া জানান, মৃত ব্যক্তি মানিকগঞ্জ থেকে তাদের হোটেল উঠে গত ১১ মে। হোটেলে ২য় তলার ৫নং রুম ভাড়া নেয়। রোববার রাতে তার রুম থেকে কোনো সাড়া শব্দ না পাওয়ায় রুমের দরজা ভেঙ্গে তাকে খাটের উপরে পড়া অচেতন অবস্থায় পাওয়া যায়। পরে পুলিশে খবর দেয়া হয়। পুলিশ ঢামেকে নিয়ে আসলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।
মতিঝিল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. ইব্রাহীম জানান, হোটেল কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে সংবাদ পেয়ে জামালের লাশ উদ্ধার করা হয়। মৃত ব্যক্তির শরীরে কোনো আঘাত নেই। ধারণা করা হচ্ছে, স্ট্রোকের কারণে তার মৃত্যু হতে পারে। ময়নাতদন্তের পরে জানা যাবে মৃত্যুর কারণ।
ভবন থেকে পড়ে ইলেক্ট্রিশিয়ানের মৃত্যু
বনানীতে একটি বহুতল ভবনের তৃতীয় তলায় এসি মেরামতের কাজ করতে গিয়ে রশি ছিঁড়ে নিচে পড়ে এক ইলেক্ট্রিশিয়ানের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল সোমবার  দুপুরে ঘটনাটি ঘটে। ইলিক্ট্রিশিয়ান আব্দুর রহিম (৩৫)বরিশালের বাবুগঞ্জের দীঘিরচরের আব্দুল কাদেরের ছেলে। বর্তমানে রাজধানীর ভাটারার সাঈদনগরে পরিবার নিয়ে ভাড়া থাকতেন।
রহিমের ছোট ভাই আব্দুল জব্বার জানান, দুপুরে বনানীর ১০ নম্বর রোডে দুপুর সোয়া একটার দিকে একটি বহুতল ভবনের তৃত্বীয় তলায় এসি মেরামতের কাজ করার সময় রশি ছিঁড়ে নিচে পড়ে গিয়ে গুরত্বর আহত হন। আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে প্রথমে সালাউদ্দিন হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে, পরে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে বিকাল সাড়ে ৫টায় কর্তব্যরত চিকিসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। ময়না তদন্তের জন্য লাশ হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ