রবিবার ১৬ আগস্ট ২০২০
Online Edition

খাগড়াছড়িতে শিক্ষকের বাসায় হামলা ॥ কাউন্সিলর সোহেল  রানা সহযোগীসহ শ্রীঘরে

 

আব্দুল্লাহ আল-মামুন, খাগড়াছড়ি থেকে : খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গায় শিক্ষকের বাসায় হামলা, ভাঙচুর, প্রাণনাশের হুমকি ও শ্লীলতাহানির চেষ্টার অভিযোগে মাটিরাঙ্গা পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. সোহেল রানা সহযোগীসহ শ্রীঘরে। 

মাটিরাঙ্গা মডেল হাই স্কুলের সিনিয়র শিক্ষক মো. হাবিবুর রহমানের মাটিরাঙ্গা থানায় দায়ের করা মামলায় বুধবার দুপুরের দিকে খাগড়াছড়ির চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আবু সুফিয়ান মোহাম্মদ নোমান’র আদালতে জামিনের আবেদন করলে বিজ্ঞ আদালত জামিন নামঞ্জুর করে তাদেরকে কারাগারে প্রেরণ করেন। বাদী পক্ষের আইনজীবি এ্যাডভোকেট মঞ্জুর মোর্শেদ ভুইয়া বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, আসামীগণ আদালতে হাজির হয়ে জামিন চাইলে আদালত জামিন নামঞ্জুর করে তাদেরকে জেলহাজতে প্রেরণ করেন।

শিক্ষক হাবিবুর রহমান জানান, গত ১ অক্টোবর পৌরসভার কাউন্সিলর সোহেল রানা দলবল নিয়ে মুসলিমপাড়ায় তাঁর বসতবাড়িতে হামলা চালায়। ওই সময় তিনি বাসায় ছিলেন না। তিনি অভিযোগ করেন, সোহেল রানার কাছে তাঁর মেয়েকে বিয়ে না দেয়ায় ক্ষুব্ধ হয়ে হামলার ঘটনা ঘটিয়েছে।

শিক্ষক হাবিবুর রহমানের সহধর্মীনি তওহিদা আক্তার জানান, সোহেল রানা দীর্ঘদিন ধরে তার বড় মেয়েকে উত্ত্যক্ত করত। কয়েকবার বিয়ের প্রস্তাবও দেয়। কিন্তু তারা এতে রাজী না হওয়ায় তার অত্যাচারে পড়ালেখা বন্ধ করে মেয়েকে গত মার্চ মাসে বিয়ে দেন। ঈদে মেয়ে বাড়িতে বেড়াতে আসে। এ খবর পেয়ে কাউন্সিলর সোহেল রানা ১ অক্টোবর দুপুরে তাদের বাসায় ঢুকে ঘরের আসবাবপত্র ভাংচুর করতে থাকে। এক পর্যায়ে মেয়েকে খুুঁজতে থাকে। এ সময় মেয়ে ঘরের একটি কক্ষে দরজা বন্ধ করে লুকিয়ে থাকে।

তিনি আরও বলেন, মেয়েকে খুঁজে না পেয়ে সোহেল রানা অশ্লীল ভাষায় গালমন্দ করে এবং তাকে মারতে তেড়ে আসে। এ সময় তার আর্তচিৎকারে প্রতিবেশীরা  ছুটে আসলে কাউন্সিলর তার দলবল নিয়ে চলে যায়। এ ঘটনায় শিক্ষক হাবিবুর রহমানের স্ত্রী ফরিদা আক্তার বাদী হয়ে গত ৪ অক্টোবর মাটিরাঙ্গা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। জানা যায়, পৌরসভার কাউন্সিলর সোহেল রানা এক সময় বিএনপির ক্যাডার ছিল। ২০১৫ সালে মাটিরাঙ্গা পৌরসভার নির্বাচনের আগে সে আওয়ামী লীগে যোগ দেয়। আওয়ামী টিকেটে নির্বাচন করে সে ৮ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়। বিভিন্ন মাদক ব্যবসার সঙ্গে তার জড়িত থাকারও অভিযোগ রয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ