মঙ্গলবার ০৭ জুলাই ২০২০
Online Edition

মুদ্রা পাচার মামলায় আপন জুয়েলার্সের ৩ মালিককে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে  শুল্ক গোয়েন্দারা

 

স্টাফ রিপোর্টার : আলোচিত বনানী ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামী সাফাত আহমেদের বাবা দিলদার আহমেদ সেলিমসহ আপন জুয়েলার্সের তিন মালিককে মুদ্রাপাচার মামলায় জিজ্ঞাসাবাদ করছে শুল্ক গোয়েন্দারা। গতকাল রোববার সকাল সাড়ে ১১ টার দিকে তাদেরকে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরে আনা হয় বলে সংস্থাটির মহাপরিচালক ড. মঈনুল খান জানিয়েছেন।

ধর্ষণের মামলায় ছেলে বন্দি হওয়ার ছয় মাস পর ২৪ অক্টোবর দিলদার ও তার দুই ভাই গুলজার আহমেদ ও আজাদ আহমেদকে মুদ্রা পাচার মামলায় কারাগারে পাঠায় ঢাকার আদালত।

জন্মদিনের অনুষ্ঠানে ডেকে নিয়ে দুই তরুণীকে ধর্ষণের মামলায় গত মে মাসে গ্রেপ্তার হয়ে কারাগারে রয়েছেন দিলদারের ছেলে সাফাত আহমেদ। তার বিচার ইতোমধ্যে শুরু হয়েছে। সাফাতের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ নিয়ে তখন দেশজুড়ে তোলপাড়ের মধ্যে আপন জুয়েলার্সের ‘অবৈধ লেনদেনের’ তদন্তে নামে শুল্ক গোয়েন্দারা। এরপর গত ১২ অগাস্ট শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর মুদ্রাপাচারসহ বিভিন্ন অভিযোগে দিলদার ও তার ভাইদের বিরুদ্ধে গুলশান, ধানমন্ডি, রমনা ও উত্তরা থানায় পাঁচটি মামলা করে।

মামলায় অভিযোগ করা হয়, চোরাচালানের মাধ্যমে শুল্ক ফাঁকি দিয়ে স্বর্ণালঙ্কার এনে এর অর্থ অবৈধভাবে বিদেশে পাঠানো হয়েছে। পাশাপাশি অবৈধভাবে অর্জিত সম্পদের সঠিক পরিমাণ তারা আয়কর বিবরণীতে উল্লেখ করেনি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ