শুক্রবার ২৯ মে ২০২০
Online Edition

ঢাকা মেডিকেল থেকে চুরি হওয়া শিশুকে পাওয়া গেল নারায়ণগঞ্জে

স্টাফ রিপোর্টার : ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মায়ের কোল থেকে নিখোঁজ তিন মাসের শিশুটিকে নারায়ণগঞ্জে উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল মঙ্গলবার বিকালে নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার কাশিপুর এলাকা থেকেই শিশুটিকে উদ্ধার করা হয় বলে জানিয়েছেন জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. শরফুদ্দিন। এ সময় মনোয়ারা বেগম নামের এক নারীকে আটক করা হয়েছে বলে জানান তিনি। ফতুল্লা মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সাইফুল ইসলাম জানান, ঢাকা মেডিকেল থেকে সোমবার রাতে চুরি হওয়া শিশুটিকে ফতুল্লার কাশিপুর খিল মার্কেট এলাকায় মনোয়ারা বেগমের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে উদ্ধার করা হয়। এসময় মনোয়ারাকে আটক করা হয়েছে। “তবে আটক মনোয়ারা বেগম জিজ্ঞাসাবাদে দাবি করেছে, ‘ওই শিশুর মা বাচ্চাটি তাদের কাছে ১০ হাজার টাকা বিক্রি করে দিয়েছে। হাসপাতালের ভিডিও ফুটেজ দেখলেই বিষয়টি পরিষ্কার হবে’।” সোমবার মধ্যরাতের পর কোনো এক সময় হাসপাতালের নতুন ভবনের ৭০১ নম্বর ওয়ার্ড থেকে জিম নামের ওই শিশুটি হারিয়ে যায় বলে পরিবারের অভিযোগ। জিম ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলার জুয়েল হোসেন ও সুমাইয়া আক্তারের মেয়ে। অসুস্থ বাবার সঙ্গে গত ৩১ অক্টোবর হাসপাতালে এসেছিল সে। ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের রমনা বিভাগের উপ-কমিশনার মারুফ হোসেন সরদার বলেন, শিশুটিকে উদ্ধার করে ঢাকায় আনা হয়েছে। এদিকে শিশু চুরির এ ঘটনায় তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা করেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। কমিটির প্রধান হলেন হাসপাতালের উপ-পরিচালক (অর্থ) বিদ্যুৎ কান্তি পাল। অন্য দুই সদস্য হলেন হাসপাতালের সহকারী পরিচালক মো. আবু জাহের ও সাইদুজ্জামান। কমিটিকে তিন কার্যদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে। শিশুটির পরিবার সূত্রে জানা গেছে, শিশুটির বাবা জুয়েল মিয়া রিকশাচালক। কিছুদিন ধরে তিনি অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি। জুয়েল মিয়ার স্ত্রী সুমাইয়া আকতার তাকে দেখাশোনার জন্য শিশুটিকে নিয়ে রাতে হাসপাতালে ছিলেন। একপর্যায়ে শিশুটিকে পাশে নিয়ে তিনি ঘুমিয়ে পড়েন। পরে শিশুটিকে আর খুঁজে পাননি। রাতেই বিষয়টি ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়িতে অভিযোগ করেন তারা। পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ উপপরিদর্শক (এসআই) বাচ্চু মিয়া বলেন, ‘শিশুটির স্বজনেরা অভিযোগ করেন। আমরা পুরো বিষয়টি শাহবাগ থানাকে অবহিত করি।’

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ