শুক্রবার ১০ জুলাই ২০২০
Online Edition

আগেই চট্টগ্রাম মহানগরীর ৫৭টি খাল থেকে মাটি ও আবর্জনা উত্তোলন করবে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন

চট্টগ্রাম অফিস: আগামী বর্ষা মৌসুমে চট্টগ্রাম নগরীর জলাবদ্ধতা নিরসনের লক্ষ্যে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নগরীর ৫৭টি খাল থেকে মাটি ও আবর্জনা উত্তোলন কার্যক্রম শুরু করেছে।
 চসিক সূত্র জানায়, চট্টগ্রাম ওয়াসার ড্রেনেজ মাস্টারপ্ল্যান-২০১৬ অনুযায়ী এই ৫৭টি খালকে ৬টি জোনে বিভক্ত করে মাটি ও আবর্জনা উত্তোলন কার্যক্রম পরিচালনার উদ্যোগ নিয়েছে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন।
এ কার্যক্রম আগামী বর্ষার পূর্বে সম্পন্ন করার টার্গেট নির্ধারণ করা হয়েছে। চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন মাটি ও আবর্জনা উত্তোলন কার্যক্রম পরিচালনায় ৫৭টি খালকে কেন্দ্র করে সংস্কারের জন্য ৬টি জোনে বিভক্ত করে ৬ জন প্রকৌশলীকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। তন্মধ্যে অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম এর তত্ত্বাবধানে মহেশ খাল, মহেশ খাল ডাইভারশন খাল, মহেশখালী খাল, নাসির খাল, রামপুর খাল, গয়নার ছড়া খাল, কুমার খাল (ড্রেজিং)ও পাকিজা খাল, কাট্টলীখাল (পরিষ্কারকরণ) মোট ৯টি খালের ১৮.২ কি.মি অংশ, তত্ত্বাবধানে প্রকৌশলী আবু ছালেহ’র তত্ত্বাবধানে পতেঙ্গা নিজাম মার্কেট খাল, ১০নং, ১১নং, ১২নং, ১৩নং, ১৪নং, ১৬নং (পরিষ্কারকরণ) ও ১৫নং খাল, গুপ্ত খাল,রুবি সিমেন্ট ফ্যাক্টরি খাল (ড্রেজিং),নয়ার হাট খাল, ছাগলনাইয়া খাল, সৈকত খাল,সøুইজ গেইট ১নং, ২নং ও ৮নং সংযুক্ত খালসহ (পরিস্কারকরণ) মোট ১৬টি খালের ৪৩.৫০ কি.মি অংশ, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মনিরুল হুদার তত্ত্বাবধানে সদরঘাট খাল ১নং,২নং,মোগলটুলী খাল,ফিরিঙ্গিবাজার খাল,টেকপাড়া খাল,কলাবাগিচা খাল ও মরিয়ম বিবি খাল (পরিষ্কারকরণ) মোট ৭টি খালের ৪.৮০ কি.মি অংশ, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী আনোয়ার হোছাইনের তত্ত্বাবধানে চাক্তাই খাল,বদরখালী খাল,জামালখান খাল, চট্টেশ্বরী খাল,হিজড়া খাল,চাক্তাই ডাইভারশন খাল (পরিষ্কারকরণ),রাজাখালী খাল,রাজাখালী খাল-১,চাক্তাই হতে রাজাখালী খাল (ড্রেজিং) ও বির্জা খাল (পরিষ্কারকরণ) মোট ১০টি খালের ২৭.২০ কি.মি অংশ, একই প্রকৌশলীর তত্ত্বাবধানে বির্জা খাল,ডোমখালী খাল,বালুখালী খাল,গেইট খাল,মির্জা খাল,ত্রিপুরা খাল,শীতল ঝর্ণা খাল,বামুনশাহী খাল,উত্তরা খাল(পরিষ্কারকরণ) ও নোয়া খাল(ড্রেজিং)সহ মোট ১০টি খালের  ৩৩.৪০কি.মি অংশ এবং তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী কামরুল ইসলামের তত্ত্বাবধানে ফরেষ্ট খাল,কৃষ্ণখালী খাল,কুয়াইশ খাল,খন্দকিয়া খাল ও যুগীর খোল খালসহ মোট ৫টি খালের ১৬.১০ কি.মি (পরিষ্কারকরণ) অংশ।
গত  ৭ জানুয়ারি  রোববার সকালে চাক্তাই খালের বহদ্দারহাট অংশ থেকে মাটি ও আবর্জনা উত্তোলন কার্যক্রম উদ্বোধন করেছেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র   আ জ ম নাছির উদ্দীন। তিনি স্কেভেটরের মাধ্যমে মাটি তুলে ট্রাকে ফেলে এবং মুনাজাতের মধ্য দিয়ে এ কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন করেন।
পরে তিনি চাক্তাই খালের পাড় দিয়ে পায়ে হেটে চকবাজার ফুলতল পর্যন্ত প্রায় ৩ কিলোমিটার এলাকার বাস্তব অবস্থা সরেজমিনে প্রত্যক্ষ করেন এবং ৫টি পয়েন্টে মাটি ও আবর্জনা উত্তোলন কার্যক্রম সচক্ষে অবলোকন করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ