মঙ্গলবার ২৬ মে ২০২০
Online Edition

সৈয়দপুরে বিচার না পেয়ে ধর্ষিতার পরিবারের আত্মহত্যার হুমকি

সৈয়দপুর (নীলফামারী) সংবাদদাতা: নীলফামারীর সয়দপুরে মেধাবী স্কুলছাত্রী ধর্ষণ মামলার দুই মাস অতিবাহিত হলেও পুলিশ ধর্ষককে গ্রেফতার না করায় হতাশ হয়ে পড়েছে পরিবারের সদস্যরা। তারা অনতিবিলম্বে ধর্ষকের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দাবী করেছে। অন্যথায় আত্মহত্যার হুমকি দিয়েছে পরিবারটি।

তাদের অভিযোগ, পুলিশ অজ্ঞাত কারনে ধর্ষককে গ্রেফতারে টালবাহানা করছে। আর এ সুযোগে ধর্ষকপক্ষের লোকজন মামলা প্রত্যাহারের জন্য অহরহ হুমকি দিয়ে আসছে।

ধর্ষকের নাম মো. রুবেল (২২)। তার বাবার নাম সামসুল হক মিস্ত্রি। বাড়ি উপজেলার কাশিরাম ইউনিয়নের পশ্চিম বেলপুকুর গ্রামের কাগজীপাড়ায়।

বুধবার সন্ধ্যায় শহরের মিডিয়া হাউসে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে ধর্ষিতার বাবা ওইসব অভিযোগ করেন। এ সময় ধর্ষিতাসহ তার বাবা, মা, ভাই ও এলাকার বিশিষ্টজনরা উপস্থিত ছিলেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মোনতাসের হোসেন মাসুম মুঠোফোনে বাদীর অভিযোগ অস্বীকার করে জানান, আসামীকে গ্রেফতারে চেষ্টা চলছে, তবে এক্ষেত্রে মামলার বাদীর সহযোগিতা প্রয়োজন।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান এনামুল হক চৌধুরী ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, স্থানীয়ভাবে ঘটনার সুরাহা করতে চেষ্টা করেছিলাম। কিন্তু কোন পক্ষই আমার কথা  শোনেনি।

কথা হয় সৈয়দপুর থানার অফিসার ইনচার্জ শাহ্জাহান পাশার সাথে। তিনি জানান, ঘটনার পর স্থানীয়ভাবে মীমাংসার চেষ্টা করতে গিয়ে বাদীপক্ষ মামলা করতে  দেরি করেছে। আর এ সুযোগেই আসামী আত্মগোপন করেছে। তবে আসামীকে গ্রেফতারে পুলিশের জোর  চেষ্টা চলছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ