রবিবার ৩১ মে ২০২০
Online Edition

রাজশাহীতে গলায় ফাঁস দিয়ে নারীর আত্মহত্যা

রাজশাহী অফিস : রাজশাহীর দুর্গাপুর পৌর এলাকার চৌপুকুরিয়া হাজিপাড়া গ্রামে গলায় ফাঁস দিয়ে লাবনী আক্তার (১৯) নামে এক নারীর আত্মহত্যা করেছে। তিনি ওই গ্রামের বাবুর মেয়ে। তবে তিনি কি কারণে আত্মহত্যা করেছে তা জানা যায়নি।

সূত্র জানায়, লাবনী দীর্ঘদিন যাবত পেটের পীড়াজনিত রোগে ভুগছিলো। তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকাসহ বিভিন্ন এলাকায় গিয়েছেন তার বাবা মা। কিন্তু ব্যথা সহ্য করতে না পেরে হয়তো সে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করতে পারে। লাবনী গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৯ টার দিকে সবার অগোচরে ঘরের বারান্দার চালার বাঁশের সাথে ওড়না পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে। 

পরে তার বাড়ির লোকজন দেখতে পেয়ে ঝুলন্ত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে দুর্গাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এদিকে রাজশাহীর বাঘায় উপজেলায় ইটবাহী একটি ট্রলির ধাক্কায় তামিম হোসেন নামে চার বছরের এক শিশু নিহত হয়েছে। গত বুধবার দুপুরে উপজেলার হিজলপল্লী গ্রামের সড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত শিশু তামিম উপজেলার উত্তর মিলিকবাঘা গ্রামের সিরাজুল ইসলামের ছেলে। 

বাঘা থানার পুলিশ জানায়, মায়ের সঙ্গে হিজলপল্লীতে নানার বাড়িতে বেড়াতে যায় তামিম। সেখানে অন্য বন্ধুদের সঙ্গে চন্ডিপুর সড়কের পাশে খেলাধুলা করছিলো সে। এসময় একটি ইটবাহী ট্রলির ধাক্কায় গুরুতর আহত শিশুটিকে বাঘা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ