রবিবার ০৫ জুলাই ২০২০
Online Edition

রাজীবের ক্ষতিপূরণ প্রসঙ্গে বিআরটিসির আপিলের আদেশ আজ

স্টাফ রিপোর্টার: রাজধানীতে দুই বাসের চাপায় হাত হারানো এবং চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যাওয়া তিতুমীর কলেজের শিক্ষার্থী রাজীবের ঘটনায় তার দুই ভাইকে এক কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত চেয়ে আপিল আবেদনের (লিভ টু আপিল) শুনানি শেষ হয়েছে। বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন করপোরেশনের (বিআরটিসি) ওই আবেদনের শুনানি শেষে এ বিষয়ে আদেশের জন্য আজ মঙ্গলবার দিন ধার্য করেছেন আপিল বিভাগ।
গতকাল সোমবার প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন চার সদস্যের আপিল বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদালতে বিআরটিসি’র পক্ষে ছিলেন এডভোকেট এবিএম বায়েজীদ। সঙ্গে ছিলেন ব্যারিস্টার মুনীরুজ্জামান। রাজীবের পরিবারের পক্ষে ছিলেন রিটকারী ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল।
গত ১৩ মে রাজীবের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত চেয়ে চেম্বার আদালতে আপিল করে বিআরটিসি। এ নিয়ে ১৭ মে শুনানি শেষে মামলাটি আদেশের জন্য গতকাল সোমবার দিন ধার্য করেছিলেন আপিল বিভাগ। তবে গতকাল এ নিয়ে পুনরায় শুনানি হয়। এরপর আদেশের জন্য আজ মঙ্গলবার দিন নির্ধারণ করেন আদালত।
ব্যারিস্টার মুনীরুজ্জামান বলেন, ‘হাইকোর্ট থেকে ক্ষতিপূরণ দিতে অর্ন্তবর্তীকালীন আদেশ দেওয়া হয়েছে। সে আদেশে আমাদেরকে (বিআরটিসি) ২৫ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে বলা হয়। কিন্তু কার কতটুকু দায় তা পরিমাপ না করে কিংবা তদন্ত না করে ক্ষতিপূরণের এ আদেশ দেওয়া হয়েছে। এ ধরনের ঘটনায় ক্ষতিপূরণ পাওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট ট্রাইব্যুনালে আবেদন করতে হয়। এছাড়া বিআরটিসি সরকারের টাকায় চলে। তারা কীভাবে ক্ষতিপূরণ দেবে? এসব কারণে হাইকোর্টের আদেশের বিআরটিসি’র অংশ স্থগিত চেয়ে আমরা লিভ টু আপিল (আপিলের অনুমতি চেয়ে আবেদন) করেছি।
প্রসঙ্গত, গত ৩ এপ্রিল দুই বাসচালকের রেষারেষিতে হাত হারান রাজীব। পরে চিকিৎসাধীণ অবস্থায় তিনি মারা যান। এ ঘটনা নিয়ে সংবাদ প্রকাশের পর গত ৪ এপ্রিল রিট আবেদন করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ