রবিবার ৩১ মে ২০২০
Online Edition

ঢাকায় ফিরছেন কর্মজীবী মানুষ

স্টাফ রিপোর্টার : ঈদের ছুটি শেষে সরকারি অফিস খুলছে রোববার। তাই গতকাল শনিবার থেকেই পুরোদমে ঢাকায় ফিরছেন কর্মজীবী মানুষ। এর আগেও অনেকে ঢাকায় ফিরেছেন। ঈদের আগে গ্রামের বাড়িতে থাকা প্রিয়জনদের সঙ্গে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করতে রেল, সড়ক ও নৌপথে রাজধানী ছেড়েছেন অসংখ্য মানুষ। শনিবার থেকে আবার গ্রাম থেকে ঢাকায় ফিরছেন তারা।

তবে সংশ্লিষ্টরা মনে করছেন, রোববার প্রথম অফিস খুললেও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের উপস্থিতি থাকবে কম। ছুটির আমেজ থাকবে প্রশাসনের কেন্দ্রবিন্দু সচিবালয়সহ বিভিন্ন সরকারি অফিসে। মূলত আরও দু’একদিন পর থেকেই পুরোদমে অফিস শুরু হবে। 

গতকাল শনিবার সকাল থেকে দূর-দূরান্তের মানুষ বাস, ট্রেন, লঞ্চসহ বিভিন্ন যানবাহনে ঢাকা ফিরতে শুরু করেন। অধিকাংশ বেসরকারি প্রতিষ্ঠান এদিন খোলা থাকতে দেখা যায়। তবে উপস্থিতি ছিল খুবই কম। তেমন কাজের তাড়া না থাকায় কর্মস্থলে যোগ দেয়া কর্মকর্তা-কর্মচারীরা নিজেদের মধ্যে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময়ের পর খোশগল্প করে সময় পার করেন। আজ রোববার থেকে শুরু হবে সরকারি অফিস-আদালত। পরিবহন কর্মকর্তারা বলছেন, শনিবার রাত থেকে ঢাকায় ফেরার পালা পুরোদমে শুরু হবে। স্কুল-কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়সহ অনেক প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা ফিরবেন আরও দেরিতে।

শনিবার দুপুরে রাজধানীর প্রবেশপথ গাবতলীতে গিয়ে দেখা যায়, বিভিন্ন এলাকা থেকে মানুষ রাজধানীতে ফিরছেন। ঈদের চতুর্থ দিনে ফেরার যাত্রায় বাস টার্মিনালগুলো দেখে মানুষের ভিড় খুব একটা লক্ষ্য করা যায়নি। তবে যারা ফিরছেন, সবারই তাড়া কর্মস্থলে যোগ দেয়ার। দুপুর পেরিয়ে বিকেল গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে যাত্রীদের আগমন বাড়তে থাকে। সন্ধ্যার পর এ সংখ্যা আরও বাড়বে বলে কাউন্টারগুলো থেকে বলা হয়। এছাড়া ঢাকায় মানুষের পা রাখার সঙ্গে সঙ্গে গণপরিবহনেও যাত্রীর চাপ বাড়ছে। সপ্তাহজুড়ে এ চাপ থাকবে বলে পরিবহন সংশ্লিষ্টরা মনে করছেন। ফেরার পালায় এখনও মহাসড়কে খুব বেশি যানজট না থাকায় স্বস্তিতে ফিরছেন সাধারণ মানুষ। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ঈদুল আজহার ছুটি শেষে রাজধানীতে যাত্রী নিয়ে যানজট ছাড়াই ফিরছে হানিফ, শ্যামলী, এসআর, দেশ ট্রাভেলস, ন্যাশনাল, ডিপজল, পাবনা এক্সপ্রেস, নাবিল, কেআর, টিআর, শাহ ফতেহ আলীসহ ঈদ সার্ভিসের বাসগুলো।

গাইবান্ধা থেকে আল হামরার এসি বাস এসে কল্যাণপুরে থামে দুপুর সাড়ে ১২টায়। বাসটির সুপারভাইজার মনির হোসেন জানান, রাস্তায় বিশেষ যানজট ছিল না। তবে গতি কখনও কখনও কম ছিল। যমুনার টোল প্লাজায় সময় একটু বেশি লেগেছে। এছাড়া পথে তেমন সমস্যা হয়নি। বাসটির গোবিন্দগঞ্জের যাত্রী ফিরোজ মিয়া জানান, স্ত্রী-সন্তান নিয়ে গ্রামে গিয়েছিলাম। মাটির টান অনুভব করেছি। ফিরতে মন চাইছিল না। মনে হচ্ছিল আরও কয়টা দিন থেকে আসি। কিন্তু বাস্তবতা ভিন্ন। চাকরির সুবাদে ফিরতেই হলো রাজধানীতে।

রংপুর থেকে আসা এসআর বাসের যাত্রী রিফাত ইসলাম বলেন, ঈদের ছুটিতে গ্রামে গিয়ে অনেক মজা করেছি। ঘুরেছি, বন্ধুরা মিলে জমপেস আড্ডা দিয়েছি। কিন্তু মনটা ভীষণ কাতরাচ্ছে। আর কটাদিন থেকে গেলে ভালো লাগতো। কিছুদিন পর পরীক্ষা, এ কারণে বাধ্য হয়ে ঢাকায় ফেরা।

মানিকগঞ্জ-পাটুরিয়া ঘাট থেকে চিটাগং রুটে চলাচলকারী নীলাচল বাসে ফেরেন একটি বেসরকারি হাসপাতালের সেবিকা সানজিদা সুলতানা। বলেন, বাড়ির কথা মনে পড়ছে। মায়ের মুখটা ভাসছে। কটাদিন পর ফের বাড়িতে আসবো- মাকে এমনটি বলে ঢাকায় রওনা দিয়েছি। ঈদের ছুটি শেষ। আজ বিকেল থেকে ডিউটি। যে কারণে ঢাকায় ফেরা। 

প্রসঙ্গত, ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্য, যথাযোগ্য মর্যাদা আর আনন্দ-উৎসবের মধ্য দিয়ে সারাদেশে ২২ আগস্ট উদযাপিত হয়েছে পবিত্র ঈদুল আজহা তথা কুরবানির ঈদ। পরিবারের সঙ্গে ঈদের নামায আর সামর্থ্য অনুযায়ী পশু কুরবানির মাধ্যমে ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা পালন করেন তাদের দ্বিতীয় প্রধান এ ধর্মীয় উৎসব। এবারের ঈদে ২১, ২২ ও ২৩ আগস্ট সরকারি ছুটি ঘোষিত হয়। তবে ২৪ ও ২৫ আগস্ট শুক্র ও শনিবার সাপ্তাহিক ছুটির কারণে পাঁচ দিনের ছুটি পান সরকারি চাকরিজীবীরা।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ