শুক্রবার ০৩ জুলাই ২০২০
Online Edition

নিরপরাধ ছাত্রদের জীবনকে ধ্বংস করে দেয়ার নির্মম খেলায় মেতে উঠেছে পুলিশ -ছাত্রশিবির

শিবিরনেতা ঢাকা মহানগরী দক্ষিণ সভাপতিসহ ৫ জনকে গ্রেফতারের ৬ষ্ঠ দিনেও আদালতে হাজির না করার প্রতিবাদ ও মুক্তির দাবিতে গতকাল সোমবার রাজধানীতে ইসলামী ছাত্রশিবিরের বিক্ষোভ মিছিল -সংগ্রাম

গ্রেপ্তারের পর ৬দিন পেরিয়ে গেলেও ছাত্রশিবির ঢাকা মহানগরী দক্ষিণ শাখার সভাপতি শাফিউল আলমসহ ৫জনকে আদালতে হাজির না করার প্রতিবাদে গতকাল সোমবার রাজধানীতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে ছাত্রশিবির ঢাকা মহানগরী দক্ষিণ ও উত্তর শাখা।
বিক্ষোভ সমাবেশে অংশ নিয়ে ছাত্রশিবির নেতারা বলেন, গণতন্ত্র, মৌলিক অধিকার ও আর্থ-সামাজিক ব্যবস্থা ধ্বংস করে দেয়ার পর অবৈধ সরকার ও তাদের সেবাদাস পুলিশ নিরপরাধ ছাত্রদের জীবনকে ধ্বংস করে দেয়ার নির্মম খেলায় মেতে উঠেছে। গত ১২ই সেপ্টেম্বর রাত আনুমানিক সাড়ে ৮টায় শাফিউল আলম তার ছোট ভাই ও ছোট ভাইয়ের বন্ধুকে নিয়ে হজ্ব ফেরত মা ও বড় ভাইকে রিসিভ করতে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে যান। মা ও বড় ভাইকে নিয়ে বাসার উদ্দেশে গাড়িতে উঠলে সাদা পোশাকধারী পুলিশ সদস্যরা মায়ের ভাইয়ের সামনে থেকেই শাফিউল আলমকে তার ছোট ভাই ও ছোট ভাইয়ের বন্ধুসহ গ্রেপ্তার করে নিয়ে যায়। পরে যাত্রাবাড়ী এলাকায় অভিযান চালিয়ে তার বাসা থেকে মো. শফিউল্লাহ ও মো. মা’আজ নামে আরো দুই শিবির কর্মীকে প্রেপ্তার করে পুলিশ। কিন্তু গ্রেপ্তারের পর ৬ দিন অতিবাহিত হলেও এখন পর্যন্ত তাদেরকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়নি এবং আদালতেও হাজির করা হয়নি। তাদের পরিবারের পক্ষ থেকে সংবাদ সম্মেলন করে সন্ধানের দাবি জানানো হয়। সংগঠনের পক্ষ থেকেও বিবৃতির মাধ্যমে তার সন্ধান দাবী করা হয়। যা বিভিন্ন গণমাধ্যমে ফলাও করে প্রচার হয়েছে। কিন্তু আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহীনি তাতে কর্ণপাত করছে না। পুলিশের এই অমানবিক কর্ম সম্পূর্ণ বেআইনি ও উচ্চ আদালতের নির্দেশনার সুস্পষ্ট লঙ্ঘন। সরকার ও পুলিশের ধারাবাহিক এমন বেআইনি কাজে মনে হচ্ছে নিরপরাধ ছাত্রদের জীবন ধ্বংস করে দেয়ার সুগভীর ষড়যন্ত্র নিয়ে মাঠে নেমেছে তারা।
নেতৃবৃন্দ করে বলেন, পুলিশ সন্ত্রাসীদের প্রতি নজর না দিয়ে নিরীহ ছাত্রদের গ্রেপ্তারের পর অস্বীকার করে অমানবিকতার পরিচয় দিচ্ছে। পুলিশের এই নীতিহীন দ্বিমুখী আচরণ জনগণকে ক্ষুদ্ধ করে চলেছে। আমরা হুশিয়ার করে বলতে চাই, ছাত্রশিবির শান্তিপূর্ণ পথ চলায় বিশ্বাসী। কিন্তু বিনা অপরাধে নেতাকর্মীদের জীবন হুমকির মুখে ঠেলে দিলে কঠোর আন্দোলনের সিদ্ধান্ত নেয়া ছাড়া আমাদের আর কোন পথ খোলা থাকবে না। আমরা অবিলম্বে গ্রেপ্তারকৃত ৫জনের সন্ধান ও মুক্তি দাবী করছি। অন্যথায় ছাত্রদের জান-মাল রক্ষায় কোন কঠোর কর্মসূচি নিয়ে রাজপথে নামলে তখন যে কোন পরিস্থিতির জন্য সরকার ও পুলিশ প্রশাসনকে দায়ী থাকতে হবে।
ঢাকা মহানগরী দক্ষিণ: গ্রেপ্তারের পর নিখোঁজ শিবির নেতা,শাফিউল আলমসহ ৫জনের মুক্তির দাবিতে রাজধানীতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে ছাত্রশিবির ঢাকা মহানগরী দক্ষিণ শাখা। সকাল ১১টায় কেন্দ্রীয় শিক্ষা সম্পাদক রাশিদুল ইসলামের নেতৃতে মিছিলটি গেন্ডারিয়া রেল স্টেশন থেকে শুরু হয়ে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে জুরাইন গিয়ে সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়। এসময় শাখা সেক্রেটারি কাজী মাসুম সরকারসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা অংশ গ্রহণ করে।
ঢাকা মহানগরী উত্তর: অবিলম্বে গ্রেপ্তারকৃতদের সন্ধান ও মুক্তি দাবি করে বিক্ষোভ মিছিল করে ছাত্রশিবির ঢাকা মহানগরী উত্তর শাখা। সকাল সাড়ে ১১টায় কেন্দ্রীয় দাওয়াহ সম্পাদক শাহ মাহফুজুর রহমানের নেতৃত্বে মিছিলটি রাজধানীর বাড্ডা এলাকা থেকে শুরু হয়ে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়। এসময় মহানগরী সেক্রেটারি মোস্তাফিজুর রহমানসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। প্রেসবিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ