বুধবার ০৫ আগস্ট ২০২০
Online Edition

রিটানিং অফিসের সভা শেষে ফেরার পথে ডা. শফিকের প্রতিনিধি নিখোঁজ পরে গ্রেফতার

রিটার্নিং অফিসারের আহ্বানে নির্বাচন মনিটরিং টিম এর সভা শেষে ফেরার পথে ঢাকা-১৫ সংসদীয় আসনের ২০ দলীয় জোট মনোনীত ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী ডা. শফিকুর রহমানের মনোনীত ও প্রেরিত প্রতিনিধি এডভোকেট আল-মহসীন তাওহীদ রহস্যজনকভাবে নিখোঁজ এবং পরবর্তীতে একটি মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে সোপর্দ করার ঘটনার তীব্র নিন্দা-প্রতিবাদ এবং অবিলম্বে মিথ্যা, ভিত্তিহীন ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত মামলা প্রত্যাহার করে নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করেছেন বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের আইনজীবী বিভাগের সভাপতি এডভোকেট এস এম কামাল উদ্দীন ও ঢাকা মহানগরী উত্তরের আইনজীবী বিভাগের সভাপতি এডভোকেট মো. মঈন উদ্দীন।
গতকাল বুধবার দেয়া বিবৃতিতে আইনজীবী নেতৃদ্বয় বলেন, সরকার পাতানো নির্বাচনের মাধ্যমে আবারও ক্ষমতা দখলের জন্য জনগণের উপর জুলুম-নির্যাতনের মাত্রা বাড়িয়ে দিয়েছে। সরকারের স্বৈরাচারি ও ফ্যাসীবাদী মানসিকতার কারণেই বিরোধী দল নির্বাচনী প্রচারে অংশ নিতে পারছে না। তারা নেতাকর্মীদের হামলা, মামলা ও গণগ্রেফতার অব্যাহত রেখেছে। সরকারের জিঘাংসা ও প্রতিহিংসা থেকে রেহাই পাচ্ছে না আইনজীবীসহ কোন শ্রেণি ও পেশার মানুষ। সে ধারাবাহিকতা বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় চিত্রশালা অডিটরিয়ামে গত ২৫ ডিসেম্বর ‘নির্বাচন মনিটরিং টিম’ এর সভা থেকে ফেরার পথে ঢাকা-১৫ সংসদীয় আসনের ২০ দলীয় জোট মনোনীত ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী ডা. শফিকুর রহমানের মনোনীত ও প্রেরিত প্রতিনিধি আল-মহসীন তাওহীদ রহস্যজনকভাবে নিখোঁজ হন। গতকাল তাকে দারুসসালাম থানায় মামলা নং-৩৪(১২)১৮ তাং-২৫/১২/১৮-এ গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। ঘটনার ধারাবাহিকতায় প্রমাণ হয় যে, সরকারি গোয়েন্দা সংস্থায় এডভোকেট তাওহিদকে প্রথমে অপহরণ ও পরে মিথ্যা, ভিত্তিহীন ও উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে মামলা দিয়ে আদালতে সোপর্দ করেছে।
তারা বলেন, এডভোকেট আল-মহসীন তাওহীদ একজন সংসদ সদস্য প্রার্থীর প্রতিনিধি। তাই তাকে অপহরণ, গ্রেফতার ও মামলা প্রদানের মাধ্যমে প্রমাণ হয়েছে সরকার, নির্বাচন কমিশন ও প্রশাসন অবাধ, নিরপেক্ষ ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের ক্ষেত্রে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করছে। তাই বর্তমান অবস্থায় কোন ভাবেই গ্রহণযোগ্য নির্বাচন সম্ভব নয়। তারা এডভোকেট তাওহীদকে অপহরণ ও পরবর্তীতে গ্রেফতারের ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান এবং অবিলম্বে তার নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ