বুধবার ০৫ আগস্ট ২০২০
Online Edition

রংপুরের মিঠাপুকুরে পেট্রল ঢেলে স্ত্রীর শরীরে আগুন ॥ স্বামী আটক

 

রংপুর অফিস : রংপুরের মিঠাপুকুর উপজেলায় সন্তানকে শাসন করায় ক্ষিপ্ত হয়ে স্ত্রী আকতারার শরীরে পেট্রল ঢেলে আগুন দিয়ে হত্যা চেষ্টার অভিযোগে স্বামী ওয়াহেদুজ্জামান ওয়াশিম আকরামকে আটক করেছে পুলিশ।

অগ্নিদগ্ধ স্ত্রী তন্বী আকতারার (২৪) সঙ্গে তার চার বছরের শিশু সন্তানও অগ্নিদগ্ধ হয়েছে বলে জানা গেছে। এ ঘটনায় স্বামী ওয়াহেদুজ্জামান ওয়াশিম আকরামকে আটক করে পুলিশ। তাকে শুক্রবার আদালতের মধ্যেমে জেল হাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ।

প্রাপ্ত তথ্যে জানা গেছে, রংপুরের মিঠাপুকুর উপজেলার কাফ্রিখাল ইউনিয়নের যাদবপুর গ্রামে বৃহ¯পতিবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটলেও রাতে বিষয়টি জানাজানি হয়। বর্তমানে অগ্নিদগ্ধ মা ও ছেলে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন রয়েছে। স্ত্রী তন্বী আকতারার শরীরের ৯৯ ভাগ অংশ পুড়ে যাওয়ায় তন্বীর অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক। উল্লেখ্য, ছয় বছর আগে প্রেমের স¤পর্ক থেকে কাফ্রিখাল ইউনিয়নের কোমরগঞ্জ খোর্দ্দ মহদীপুর গ্রামের আব্দুর রশীদের কন্যা তন্বী আকতারের সঙ্গে যাদবপুর গ্রামের আবুল হোসেনের পুত্র ওয়াশিম আকরামের বিয়ে হয়। বিয়ের পর তাদের দাম্পত্য জীবনে একটি পুত্র সন্তান জন্ম নেয়।

প্রতিবেশীরা জানায়, বৃহস্পতিবার দুপুরে শিশু পুত্র তামিমকে মারধর করেন মা তন্বী আকতার। এ নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া হয়। একপর্যায়ে তন্বীর শরীরে ঘরে থাকা পেট্রল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয় ওয়াশিম আকরাম। পরে প্রতিবেশীরা তন্বীকে উদ্ধার করে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। এদিকে রাতে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডাক্তার রুপশ্রী পাল জানান, আগুনে পুড়ে যাওয়া তন্বীর অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাঁর শরীরের ৯৯ ভাগই পুড়ে গেছে।

আগুন দিয়ে হত্যা চেষ্টার এ ঘটনায় স্বামী ওয়াশিম আকরামকে আটক করেছে মিঠাপুকুর থানা পুলিশ। এ ব্যাপারে থানায় একটি মামলা হয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে বলে জানিয়েছে মিঠাপুকুর থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জাফর আলী বিশ্বাস। ওসি জানান শুক্রবার দুপুরে কোর্টের মধ্যেমে তাকে জেল হাজতে পাঠানো হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ