বুধবার ০৫ আগস্ট ২০২০
Online Edition

রান্না-বান্না

গালোতি কাবাব
আমরা সবাই-ই কম বেশি কাবাব খেতে পছন্দ করি। বিভিন্ন ধরনের কাবাব আমরা খেয়ে থাকি। আজকে যে কাবাবের গল্প করবো ওটার নাম হচ্ছে “গালোতি কাবাব “। এই কাবাবটির প্রচলন শুরু হয় লোখনো নবাবদের কাছ থেকে। লোখনোতে নবাবদের বিভিন্ন অনুষ্ঠান কিংবা মেহমানদারিতে এই কাবাব পরিবেশন করা হতো। চলুন তবে জেনে নেই নবাবী এই রেসিপিটি কিভাবে খুব চটজলদি এবং সহজ উপায়ে তৈরি করা যায়!
গালোতি কাবাব বানানোর নিয়ম
উপকরণ   
১. খাসীর মাংস- ২ কাপ (কিমা করা)
২. দেশি ঘি- ১ কাপ
৩. গুঁড়া  মরিচ- ১  চা চামচ
৪. গুঁড়া হলুদ– ২ চা চামচ
৫. আদা বাটা- ২ চা চামচ
৬. রসুন বাটা- ২ চা চামচ
৭. লবণ- পরিমান মতো
৮. গরম মসলা- ২ চা চামচ
৯. পেঁয়াজ কুচি- ১ কাপ
প্রণালী
(১) প্রথমে একটি বাটিতে মাটন কিমা নিয়ে, তাতে একে একে  গুঁড়া  মরিচ, গুঁড়া হলুদ, লবণ, আদা বাটা, রসুন বাটা, গরম মসলা ও পেঁয়াজ কুচি মিশিয়ে নিতে হবে।
(২) তারপর হাতের সাহায্যে কিমাগুলোকে গোল গোল করে কাবাবের আকার দিতে হবে।
(৩) তারপর একটি কড়াই অথবা ফ্রাইং প্যান-এ  ঘি অল্প আঁচে গরম করে নিতে হবে।
(৪) তারপর কাবাবগুলো গরম ঘি-এর মধ্যে দিয়ে অল্প আঁচে ভেজে নিতে হবে।
(৫) কাবাব বাদামি রঙ-এর হয়ে গেলে কাবাবগুলো তুলে নিতে হবে।
ব্যস! হয়ে গেল মজাদার গোলাতি কাবাব। এই কাবাব রুটি, পরোটা, নান দিয়ে খেতে পারেন। চাইলে সাথে চিলি সস অথবা টমেটো সস-এর সাথে গরম গরম পরিবেশন করতে পারবেন।

চিকেন বিরিয়ানি স্পেশাল রেসিপি
বিরিয়ানির নাম শুনে জ্বিভে জল আসে না এমন মানুষ পাওয়া দুষ্কর। কিন্তু ব্যস্ততার কারণে হয়তো মোঘল স্টাইল-এ অথবা রেস্তোরার স্বাদে মজাদার বিরিয়ানি রান্না করার সময়টুকু হয়ে উঠে না। আজকে আমরা দেখাবো কিভাবে খুব সহজে ঘরে বসেই রেস্তোরার স্বাদে মজাদার চিকেন বিরিয়ানি রান্না করা যায়!চিকেন বিরিয়ানি রান্নার রেসিপি
উপকরণ
চিকেন রান্নার জন্য যা যা লাগবে-
১. মুরগী- ১ কেজি
২. আদা বাটা- ১.৫ চা চামচ
৩. ধনিয়া গুড়া- ১ চা চামচ
৪. জিরা গুড়া- ১ চা চামচ
৫. টকদই- ২ টেবিল চামচ
৬. রসুন বাটা- ১.৫ চা চামচ
৭. মরিচের গুড়া- ১ চা চামচ
৮. জয়ফল-জয়ত্রী গুড়া- ১/২ চা চামচ
৯. গরম মসলা গুড়া- ১.৫ চা চামচ
১০. লবণ- পরিমাণমতো
১১. তেল- ৩ টেবিল চামচ
১২. পেঁয়াজ কুঁচি- ২ টেবিল চামচ
১৩. ঘি- ২ টেবিল চামচ
১৪. পেঁয়াজ মরিচ বাটা- ১/২ কাপ
রান্নার পদ্ধতি
(১) প্রথমে একটি পাত্রে মুরগী নিয়ে তাতে একে একে আদা বাটা, রসুন বাটা, জিরা গুড়া, ধনিয়া গুড়া, টক দই, মরিচের গুড়া, জায়ফল-জয়ত্রী গুড়া, গরম মসলা গুড়া, লবণ, এবং পেঁয়াজ মরিচ বাটা মাখিয়ে এক ঘন্টা রেখে দিতে হবে।
(২) তারপর একটি প্যান-এ তেল আর ঘি দিয়ে গরম হয়ে এলে পেঁয়াজ কুঁচি দিয়ে ভেজে নিতে হবে।
 (৩) পেঁয়াজ সামান্য ভাজা হয়ে গেলে তাতে মেরিনেট করে রাখা মুরগী সব মসলাসহ দিয়ে দিতে হবে।
(৪) মুরগী হয়ে গেলে নামিয়ে রাখতে হবে।
রাইস রান্নার জন্য যা যা লাগবে-
১. পোলাও-এর চাল- ১ কেজি
২.পেঁয়াজ কুঁচি- ১/২ কাপ
৩.তেল- ৩ টেবিল চামচ
৪. ঘি- ২ টেবিল চামচ
৫. আদা বাটা- ২ টেবিল চামচ
৬. রসুন বাটা- ২ টেবিল চামচ
৭. এলাচ- ৪ টুকরা
৮. দারচিনি- ২ টুকরা
৯. তেজপাতা- ৩ টুকরা
১০. গরম পানি- চালের দ্বিগুণ
১১. লবণ- পরিমাণমতো
১২. কাজু বাদাম- ১/২ কাপ
১৩. গোলাপ জল- ২-৩ ফোঁটা
১৪. কেওড়া জল- ২ ফোঁটা
রান্নার পদ্ধতি
(১) প্রথমে চাল ধুয়ে পানি ছেঁকে নিতে হবে।
(২) তারপর একটি প্যান-এ তেল ও ঘি গরম করে তাতে পেঁয়াজ কুচি, এলাচ, দারচিনি, তেজপাতা দিয়ে ভেজে নিতে হবে।
(৩) পেঁয়াজ লাল লাল করে ভাজা হলে তাতে আদা বাটা, রসুন বাটা দিয়ে নাড়তে হবে।
(৪) তারপর চাল দিয়ে তাতে লবণ দিয়ে আরো কিছুক্ষণ ভেজে নিতে হবে।
(৫) ভাজা হয়ে গেলে তাতে গরম পানি দিয়ে ঢেকে দিয়ে অল্প আঁচে রান্না করে নিব।
(৬) পানি কমে আসলে তাতে আগে থেকে রান্না করা মুরগী দিয়ে নেড়ে আরো কিছুক্ষন অল্প আঁচে রান্না করে নিতে হবে।
(৭) তারপর হয়ে এলে কেওড়া জল এবং গোলাপ জল ছিটিয়ে দিতে হবে।
ব্যস! হয়ে গেলো মজাদার চিকেন বিরিয়ানি। এভাবে খুব সহজে পরিবারের সবার জন্য রান্না করে ফেলুন চিকেন বিরিয়ানি এবং কাছের মানুষদের নিয়ে উপভোগ করুন মজাদার এই ডিশ-টি!

গরুর মাংসের শুটকি খুব খুব মজার একটা খাবার। আপনারও খাবেন কিন্তু। ও! রেসিপিটি দেখুন তবে-
গরুর মাংসের শুটকি রান্নার নিয়ম
উপকরণ
(১) গরুর মাংসের শুটকি- ১/২ কেজি ( আগে থেকে হাড় ছাড়া গরুর মাংস ছোট ছোট টুকরা করে কেটে, ধুয়ে সুই-সুতা দিয়ে ২-৩ দিন ধরে কড়া রোদে লবণ ও হলুদ গুঁড়া মাখিয়ে  শুকিয়ে নিতে হবে)
 (২) পেঁয়াজ বাটা- ১ টেবিল চামচ
 (৩) রসুন বাটা- ১ টেবিল চামচ
 (৪) আদা বাটা- ১ টেবিল চামচ
 (৫) মরিচ গুঁড়া- ১ চা চামচ
 (৬) হলুদ গুঁড়া- ১/২ চা চামচ
 (৭) ধনিয়ে গুঁড়া- ১ চা চামচ
 (৮) জিরা বাটা/ জিরা গুঁড়া- ১/২ চা চামচ
 (৯) কাঁচা মরিচ- ২ চা চামচ
(১০) এলাচ-৩ টি
(১১) দারচিনি টুকরা- ৩টি
(১২) তেজপাতা- ৩/৪টি
(১৩) তেল- ১/৩ কাপ
(১৪) লবণ- পরিমাণমতো
প্রণালী
১. প্রথমে গরুর মাংসের শুটকি গরম পানিতে ভালোভাবে ধুয়ে নিন।
২. এবার প্রেশার কুকার-এ সামান্য পানি দিয়ে চুলায় বসিয়ে দিন। যখন ৭-৮টা সিটি দিবে, তখন চুলা থেকে নামিয়ে পানি ঝরিয়ে নিন।
৩. তারপর একটি প্যান-এ গরম মসলাগুলো ও লবণ দরকার হলে দিয়ে তার  গন্ধ ছড়ানো পর্যন্ত ভেজে নিন।
৪. এরপর এতে পেঁয়াজ কুচি দিয়ে আরও কিছুক্ষণ মসলা দিয়ে কষিয়ে নিন।
৫. মসলা কষানো হয়ে গেলে, তাতে গরুর মাংসের শুটকি দিয়ে ভালো করে কষিয়ে নিন।
৬. এখন এক কাপ পানি দিয়ে ঢাকনা দিয়ে রাখুন।
৭. পানি শুকিয়ে তেল উঠে এলে নামিয়ে নিন!
হয়ে গেল, মজাদার ময়মনসিংহের বিখ্যাত গরুর মাংসের শুটকি!

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ