শুক্রবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

লরিতে উদ্ধার হওয়া ৩৯ চীনা লাশ প্রশ্নে কঠোর শাস্তি দাবি

ময়নাতদন্ত করবে যুক্তরাজ্য 

২৫ অক্টোবর, বিবিসি : যুক্তরাজ্যের এসেক্সে একটি লরিতে উদ্ধার হওয়া ৩৯ চীনা অভিবাসীর লাশের মধ্যে কয়েকটির ময়নাতদন্ত করা হবে। গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় লরি থেকে ১১ মরদেহ অ্যাম্বুলেন্সে টিলবারি থেকে ব্রুমফিল্ড হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। 

এছাড়া হত্যাকা-ে জড়িত সন্দেহে লরি চালক মো রবিনসনকে কাস্টডিতে রাখার মেয়াদ বাড়ানো হয়েছে। তবে চীনের পক্ষ থেকে উদ্ধার হওয়া লাশগুলো প্রশ্নে কঠোর শাস্তি দাবী করা হয়েছে। 

গত বুধবার যুক্তরাজ্যের এসেক্সে একটি লরি থেকে ৩৯টি লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। লাশের মধ্যে ৩১ জন পুরুষ ও ৮ জন নারী। এ ঘটনায় উত্তর আয়ারল্যান্ড থেকে সন্দেহভাজন হত্যাকারী হিসেবে ২৫ বছরের লরি চালককে গ্রেফতার করা হয়েছে। পুলিশ জানায়, ট্রাকটি বেলজিয়াম-বুলগেরিয়া থেকে ১৯ অক্টোবর যুক্তরাজ্যের ওয়েলসের হলিহেড এলাকায় প্রবেশ করে। গত বৃহস্পতিবার এসেক্স পুলিশ জানিয়েছে, ৩৯টি লঅশই চীনা নাগরিকদের।

পুলিশ প্রহরায় স্থানীয় সময় ১৯ টা ৪১ মিনিটে (বিএসটি) বেসরকারি অ্যাম্বুলেন্স লাশ নিয়ে বন্দর ছাড়ে।

যুক্তরাজ্যের শীর্ষ স্থানীয় ফরেনসিক বিশেষজ্ঞ ড. রিচার্ড শেফার্ড বলেছেন, ময়নাতদন্ত পরীক্ষায় অনেক ধীরগতি ও সুসংগঠিত হতে হবে। তাদের পরনে কেমন পোশাক? কোনও অলঙ্কার রয়েছে কিনা যা দ্বারা তাদের শনাক্ত করা যাবে? কোনও নথি কি আছে? কিংবা কোন পাসপোর্ট? এসব পুরো বিষয় মনোযোগ দিয়ে পরীক্ষা করতে হবে।

ড. শেফার্ড আরও জানান, কীভাবে মৃতরা রেফ্রিজারেশন ইউনিটে প্রবেশ করলেন তাও খতিয়ে দেখবেন ফরেনসিক বিশেষজ্ঞরা।  এসেক্স পুলিশের এক মুখপাত্র জানান, সবগুলো মরদেহ লরি থেকে উদ্ধারে সময় লাগবে। লাশগুলোর যথাযথ সম্মান নিশ্চিত করাকেই অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে। যুক্তরাজ্যে নিযুক্ত চীনা রাষ্ট্রদূত লিউ জিয়াউমিং জানান, লাশগুলো শনাক্ত করতে সহযোগিতার জন্য তাদের একটি দলকে এসেক্স পাঠানো হয়েছে। এখনও লাশগুলোর পরিচয় নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তদন্তের অংশ হিসেবে উত্তর আয়ারল্যান্ডের তিনটি স্থানে অভিযান চালানো হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ