শনিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

আইসিসির সিদ্ধান্ত যাই হোক সাকিবের পাশে থাকব

 

স্পোর্টস রিপোর্টার : যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল এমপি বলেছেন, সাকিব আল হাসানের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) যে সিদ্ধান্তই নিক, আমরা সাকিবের পাশেই থাকবো। এ ছাড়া বিসিবি পরিচালক ক্যাসিনো কা-ে জড়িত লোকমান হোসেনকে দ্রুত বিসিবির পরিচালক পদ থেকে অপসারণ করার ও নির্দেশনা দেন প্রতিমন্ত্রী। গতকাল মঙ্গলবার সচিবালয়ে বাংলাদেশের টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের বিরুদ্ধে আইসিসির সম্ভাব্য নিষেধাজ্ঞার যে খবর বেরিয়েছে তার প্রতিক্রিয়ায় ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী বলেছেন, ‘আইসিসি কি ধরনের সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছে, এটা তো নির্ভরযোগ্য রিপোর্ট নয়। যদি কোনো কঠোর সিদ্ধান্ত আসে বা না আসে যেটাই হোক, আমরা অবশ্যই আমাদের খেলোয়াড় সাকিবের পাশে থাকবো। তাকে কীভাবে রক্ষা করা যায় সে চেষ্টা করবো। তবে যেহেতু এটা আইসিসির বিষয়, আমাদের হস্তক্ষেপ করার সুযোগ নেই। খবরে আসার পর বিষয়টি আমরা সার্বক্ষণিক মনিটরিং করছি এবং কি করে সুষ্টভাবে সমাধান করা যায়, সে বিষয়টিও দেখছি’-বলেছেন ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী।

সাকিবের বিতর্কে জড়িয়ে যাওয়া এবং ভারত সফরে না খেললে দলের ওপর কতটা প্রভাব পড়তে পারে সে প্রসঙ্গে ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী গতকাল মঙ্গলবার বলেছেন, ‘কোনো খেলোয়াড় যদি খেলে বা না খেলে তার ওপর দল ঘোষণার তো একটা ব্যাপার আছে। এর ওপর অনেক কিছু নির্ভর করবে। ঘটনাটা কি এবং কি হতে যাচ্ছে বিষয়টি জানানোর জন্য আমি ইতোমধ্যে বিসিবির সঙ্গে কথা বলেছি। তারা আমাকে আস্বস্ত করেছেন যে, আজকের (মঙ্গলবার) মধ্যেই এ বিষয়টি নিয়ে আইসিসির কাছে লিখবেন এবং আশা করছি দ্রুতই জানা যাবে কি হতে যাচ্ছে।’ ক্রিকেটারদের আন্দোলনের পর এমন একটি ঘটনা। অনেকে মনে করছেন সাকিবকে ফাঁসিয়ে দেয়া হয়েছে। তেমন কি? ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রীর জবাব, ‘না। আমার ধারণা ওটার সাথে এটার কোনো সম্পর্ক নেই। এ কারণেই যে, অনেক দিন ধরেই নাকি চলছিল বিষয়টি। হয়তো আমাদের খেলোয়াড়রাই বিষয়টি অবগত করেনি। এটা আমাকে ক্রিকেট বোর্ড জানিয়েছে। বিষয়টি আমার একদম অজানা ছিল। পত্রিকা দেখেই এটা আমি জানতে পেরেছি। জানতে পেরেই আমি ক্রিকেট বোর্ডের সাথে কথা বলেছি। ক্রিকেট বোর্ডও আমাকে বলেছে, তারাও কিছু জানতো না। সাকিব হয়তো বিষয়টি হালকাভাবে নিয়েছে। হয়তো ভেবেছে কিছু হবে না। এটা যে এতদূর এগিয়েছে, কেউ তা বুঝতে পারেনি।’

সচিবালয়ে প্রতিক্রিয়া জানাচ্ছিলেন সাকিব আল হাসানের আইসিসি থেকে নিষেধাজ্ঞার প্রসঙ্গ নিয়ে। যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল এমপিকে এক পর্যায়ে উত্তর দিতে হলো বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের পরিচালক লোকমান হোসেন ভুঁইয়াকে নিয়েও। ক্যাসিনো কা-ে জড়িত থাকার অভিযোগে গ্রেফতার হওয়ার পরও কেন লোকমান হোসেনকে বিসিবিতে রাখা হয়েছে, যেখানে এ বিষয়টি নিয়ে মতামত দিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরও। এ প্রসঙ্গে ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী বলেছেন, ‘আপনারা জানেন, ক্রিকেট বোর্ড একটা গঠণতন্ত্র অনুযায়ী চলে। আইসিসির নিয়ম অনুযায়ী চলে। তবে যেহেতু ইতিমধ্যে মোটামুটি প্রমাণিত হয়ে গেছে যে, সে ক্যাসিনো কা-ে জড়িত ছিল। তাই দ্রুত লোকমানকে বিসিবির পদ থেকে সরিয়ে দেয়া উচিত। পরবর্তীতে যদি আইনগতভাবে সে নির্দোষ প্রমাণিত হয় তখন দেখা যাবে। এখন যেহেতু সে ইতিমধ্যে তার বিভিন্ন বক্তব্য এসেছে সে ক্যাসিনো কান্ডে জড়িত এবং তার টাকা পাচারের কথাগুলোও উঠে এসেছে, তাই ব্যক্তিগতভাবে আমি মনে করি তাকে সরিয়ে দেয়া উচিত।’

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ