বুধবার ০৫ আগস্ট ২০২০
Online Edition

শীর্ষ নেতৃবৃন্দের বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালিয়ে চরিত্র হননের অপচেষ্টা চালানো হয়েছে -তাসনীম আলম

দৈনিক মানবজমিন পত্রিকার ১ম পৃষ্ঠায় “আমীরকে ঘিরে জামায়াতে দ্বন্দ্ব” শিরোনামে প্রকাশিত ভিত্তিহীন রিপোর্টের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় প্রচার বিভাগের সেক্রেটারি অধ্যাপক মোঃ তাসনীম আলম বলেন, দৈনিক মানবজমিন পত্রিকায় “আমীরকে ঘিরে জামায়াতে দ্বন্দ্ব” শিরোনামে প্রকাশিত ভিত্তিহীন অসত্য রিপোর্টের আমি তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। রিপোর্টটি সঠিক তথ্যভিত্তিক নয়।
গতকাল মঙ্গলবার দেয়া বিবৃতিতে তিনি বলেন, মানবজমিন পত্রিকায় প্রকাশিত ভিত্তিহীন রিপোর্টটি প্রকাশ করে জামায়াতের নতুন আমীর ডা. শফিকুর রহমানসহ শীর্ষ নেতৃবৃন্দের বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালিয়ে তাদের ভাবমর্যাদা ক্ষুণœ করে তাদের চরিত্র হননের অপচেষ্টা চালানো হয়েছে। মানবজমিনের মত একটি দৈনিক পত্রিকার এ ধরনের ভূমিকা অত্যন্ত দুঃখজনক।
তিনি বলেন, মানবজমিনের রিপোর্টটির জবাবে আমি স্পষ্টভাষায় জানাতে চাই যে, জামায়াতে যে দ্বন্দ্বের কথা লেখা হয়েছে তা সংশ্লিষ্ট রিপোর্টারের নিজস্ব অবাস্তব কল্পনা। নতুন নির্বাচিত আমীর ডা. শফিকুর রহমান গঠনতন্ত্র অনুযায়ী সংগঠনের নতুন সেক্রেটারি জেনারেল মনোনীত করবেন। এ নিয়ে সংগঠনের মধ্যে দুটি বলয় তৈরি বা আমীরে জামায়াতের উপর কারো অসন্তুষ্ট হওয়ার প্রশ্নই আসে না। সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল মাওলানা রফিকুল ইসলাম খান বা অন্য কারোর উপর দায়িত্ব দেয়ার ক্ষেত্রে নতুন আমীরের অনাগ্রহের প্রশ্ন অবান্তর। ডা. শফিকুর রহমানের জয়ী হওয়ার ক্ষেত্রে নারী ভোট প্রধান ভূমিকা রাখার যে আলোচনার কথা লেখা হয়েছে তা সঠিক নয়। আমীর নির্বাচনে নারী ও পুরুষ ভোটারদের ভূমিকা আলাদাভাবে নির্ণয় করার কোনো সুযোগ ছিল না।
তিনি আরো বলেন, নতুন আমীরের আওয়ামী লীগের এক কেন্দ্রীয় নেতার সাথে সুসম্পর্ক থাকা কিংবা সরকারের ঘনিষ্ট সূত্রের সঙ্গে যোগাযোগ থাকার যে কথা লেখা হয়েছে তা কাল্পনিক। অত্র রিপোর্টে জামায়াতের সদস্যদের (রুকন) যে সংখ্যা উল্লেখ করা হয়েছে, তাও সঠিক নয়।
জামায়াতে ইসলামীর বিরুদ্ধে এ ধরনের ভিত্তিহীন রিপোর্ট প্রকাশ করা থেকে বিরত থাকার জন্য তিনি দৈনিক মানবজমিন পত্রিকা কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানান।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ